অশ্বিনী কুমারের নাম দেখতে চায় বরিশাল,র নাগরিকরা

সিটি নিউজ ডেস্ক:: ‘অশ্বিনী কুমার দত্তের বাসভবনে পরিচালিত সরকারি বরিশাল কলেজের নামের সঙ্গে মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্ত’র নাম দেখতে চায় বরিশালের সামজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের প্রতিনিধিসহ অধিকাংশ মানুষ। সেই চাওয়াকে সরকার প্রধান্য দিয়ে প্রস্তাবনা গ্রহণ করেছে। এখন ওই প্রস্তাবনা বাস্তবায়ন হবে এটাই প্রত্যাশা। সরকারি প্রস্তাবনার পক্ষে জনমত গঠন এবং বর্তমান প্রজন্মের কাছে অশ্বিনী কুমারকে তুলে ধরার উদ্যোগ নিতে হবে।’

বরিশালে অনুষ্ঠিত সরকারি বরিশাল কলেজকে মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে নামাকরণ বাস্তবায়ন কমিটি আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন নাগরিকরা। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় নগরের ফারিয়া কমিউনিটি সেন্টারে ওই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক সাংবাদিক ও সাংস্কতিক ব্যক্তিত্ব অ্যাডভোকেট মানবেন্দ্র বটব্যালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন, বাস্তবায়ন কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক কেএসএ মহিউদ্দিন মানিক (বীরপ্রতীক), সমন্বয়কারী স্নেহাংশু বিশ্বাস, উন্নয়ন সংগঠক আনোয়ার জাহিদ, উদীচী বরিশালের সাবেক সভাপতি অ্যাড. বিশ্বনাথ দাস মুন্সী, খেলাঘর বরিশাল জেলার সভাপতি অধ্যাপক নজমুল হোসেন আকাশ, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সভাপতিম-লীর সদস্য আজমল হোসেন লাবু, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সভাপতিম-লীর সদস্য এবং বরিশাল থিয়েটার সভাপতি শুভংকর চক্রবর্তী, শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসেন, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সমকাল বরিশাল ব্যুরো প্রধান পুলক চ্যাটার্জী, বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সুশান্ত ঘ্ষো, সাধারণ সম্পাদক মিথুন সাহা, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি বরিশাল জেলার সভাপতি নজরুল হক নীলু, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি বরিশাল জেলা সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক দুলাল মজুমদার, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি অ্যাড. একে আজাদ, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ বরিশাল জেলার সদস্য সচিব ডা. মনিষা চক্রবর্তী, সমন্বিত সমাজ উন্নয়ন সংস্থারর সদস্য সচিব কাজী এনায়েত হোসেন শিবলু, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সম্পাদক সুরঞ্জিত দত্ত লিটু, প্রগতি লেখক সংঘের সাধারণ সম্পাদক অপূর্ব গৌতম, চারুকলা বরিশালের অ্যাড. সুভাষ দাস নিতাই।

অন্যান্যের মধ্যে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পুষ্প চক্রবর্তী, জাতীয় কবিতা পরিষদের সভাপতি তপংকর চক্রবর্তী, বরিশাল নাটকের সাধারণ সম্পাদক পার্থ সারথি, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ বরিশাল বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সংলাপের সভাপতি মারিফ আহম্মেদ বাপ্পি, অক্ষর সাহিত্যের সুজয় সেন, উত্তরণ সাংস্কৃতিক সংগঠনের সভাপতি জোবায়ের হাসান শাহেদ, সাধারণ সম্পাদক শাকিল আহমেদ, অশ্বিনী কুমার স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুর রহমান সাগর, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি সম্পা দাস, সাধারণ সম্পাদক কিশোর কুমার বালাসহ ৩৫ সংগঠনের প্রতিনিধিরা।

মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তকে নিয়ে একটি মহল বিভ্রান্ত ছড়াচ্ছে। অশ্বিনী কুমার দত্তের বাসভবন ও বাড়ি কারো কাছে বিক্রি হয়নি। ওই বসতবাড়ি সরকার একোয়ার করেছে। পরে ১৯৭০ সালে ১৯ আগস্ট বরিশাল নাইট কলেজের কাছে ৪০ হাজার ২৯৫ টাকা ২৪ পয়সার বিনিয়ম দেওয়া হয়। বর্তমানে তাঁর বাড়িতে থাকা সরকারি বরিশাল কলেজের নামের সঙ্গে অশ্বিনী কুমার দত্তের নাম যুক্ত করা অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক। এই দাবির বিপক্ষে একটি চক্র নামকরণের বিরোধিতা করে বিভ্রান্তি ছাড়াচ্ছে এবং বিষয়টি সাম্প্রদায়িকতার রূপ দিতে মরিয়া হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধো মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ করতে হবে।

একই সঙ্গে সরকারি বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তনের সরকারি যে প্রস্তাবনা দেওয়া হয়েছে সেই প্রস্তাবনা দ্রুত বাস্তবায়নে সরকার, সরকারি দল এবং সর্বস্তারের নাগরিকেদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। একই সঙ্গে সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠনকে এই দাবির পক্ষে অবস্থান নেওয়ার জন্যও সভা থেকে আহ্বান জানানো হয়।

সুত্র; হ্যালো বরিশাল

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin