বরিশালের বাবুগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সাথে সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাপসী’র প্রতারণা !

সিটি নিউজ ডেস্ক:: বরিশালের বাবুগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে সরকারী বরাদ্দের ঘর দেওয়ার কথা বলে সাদা ষ্ট্যাম্পে প্রতিবন্ধি ছেলে ও তার মায়ের সাক্ষর নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। একই সাথে অসহায় মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের কাছ থেকে ঘর দেয়া বাবদ চার লক্ষ টাকা দাবি করেন বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার দক্ষিন রাকুদিয়া এলাকার সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিফাত জাহান তাপসী।

শনিবার সকাল ১১টায় বরিশাল প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন মৃত: মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মিলন হওলাদার এর প্রতিবন্ধি ছেলে মোঃ নজরুল ইসলাম হাওলাদার।। এঘটনায় নজরুল ইসলাম হাওলাদার বাদী হয়ে পহেলা সেপ্টেম্বর সাবেক ওই মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিফাত জাহান তাপসী’র বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের । যার মামলা নং ৬৮।

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে মোঃ নজরুল ইসলাম হাওলাদার বলেন , চলতি বছরের ২৯ জুলাই মুক্তিযোদ্ধাদের সরকারি ঘর দেওয়ার কথা বলে তাকে ও তার মা ৭০ বছর বয়সি বৃদ্ধা মনোয়ারা বেগমকে ডেকে নেয় সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিফাত জাহান তাপসী। এসময় তাপসী তার সরকারি কোয়াটারে বসে প্রতিবন্ধি ও তার মায়ের একশ টাকার দুটি সাদা ষ্ট্যাম্পে সাক্ষর নেয়।

এই ঘটনার পরে তারা স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা কার্যালয়ে খোঁজ নিয়ে জানতে পারে মুক্তিযোদ্ধাদের ঘর পেতে কোন ষ্ট্যাম্পে সাক্ষর লাগেনা। পরে তারা ওই সাক্ষরকৃত ষ্ট্যাম্প ফেরত চাইলে ষ্ট্যাম্প না দিয়ে বরং আরো চার লক্ষ টাকা দাবি করে। দাবিকৃত টাকা না দিলে ভুক্তভোগীদের বরিশালের উজিরপুরের কালির বাজার নামক স্থানে থাকা জমি অন্যের কাছে বিক্রি করে টাকা নিবে বলে হুমকী প্রদান করে। পরে তারা ষ্ট্যাম্প ফেরত চেয়ে মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় রাকুদিয়া এলাকার সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিফাত জাহান তাপসী’র স্বামী মনিরুজ্জামান মনির হাওলাদারকে ৪নং স্বাক্ষি রাখা হয়েছে। অভিযুক্ত তাপসীর বিরুদ্ধে এলাকায় আরো একাধিক অভিযোগ রয়েছে বলে অভিযোগ করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মোঃ নজরুল ইসলাম হাওলাদার আরো বলেন, আমাদের উজিরপুরের কালির বাজার এলাকায় থাকা সামান্য কিছু সম্পত্তি আত্মসাৎ করার লক্ষে সাবেক এই মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রতারণা ফাদ তৈরী করেন। তিনি বিভিন্ন ভাবে আমাদেরকে হুমকী দিয়ে ওই জমি বিক্রি করতে চাচ্ছেন। বিভিন্ন মাধ্যমে আমরা জানতে পেরেছি জমির বিক্রির জন্য তারা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ওই জমি বিক্রি করে দিলে আমরা পথে বসে যাবো।

এবিষয়ে ওই এলাকার মুক্তিযোদ্ধা সার্জেন্ট জাহাঙ্গির জানান, বিষয়টি সম্পর্কে আমরা অবগত আছি। ওর বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তারা নিয়মিত ভাতাও পাচ্ছেন। এই ঘটনাটি একটি দু:খজনক ঘটনা। আমরা মৌখিক ভাবে বিষয়টি জানিয়েছি। আমরাও এর ন্যায় বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

অভিযোগের বিষয়ে রাকুদিয়া এলাকার সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিফাত জাহান তাপসী’র সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেনি।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin