বরিশালে শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগ

সিটি নিউজ ডেস্ক:: বরিশাল নগরীর রূপালী দারুস সুন্নাহ্ কওমী মাদ্রাসায় এক শিশু শিক্ষার্থীকে বলৎকারের অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় অসুস্থাবস্থায় শিশুটিকে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ২৪নং ওয়ার্ডে অবস্থিত অভিযুক্ত শিক্ষকের বিচার দাবী করেছেন শিশুটির বাবা। পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষক আরিফুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে। শিশুটির বাবা নগরীর ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের হরিনাফুলিয়া মিস্ত্রি বাড়ি এলাকার সাকিবুল ইসলাম জানান, কোরআনে হাফেজ করার উদ্দেশ্যে তার ছেলেকে ২ বছর আগে রূপাতলী দারুস সুন্নাহ্ কওমী মাদ্রাসায় ভর্তি করেন। সেখানে সে আবাসিক ছাত্র হিসেবে পড়ালেখা করে আসছিলো।

গত সোমবার ছেলের সাথে দেখা করতে মাদ্রাসায় যায় তার মা। এ সময় ছেলের কাছ থেকে তার মা জানতে পারেন মাদ্রাসার এক শিক্ষক গত বৃহস্পতিবার রাতে শিশুটির সাথে অপকর্ম করেছে। এ ঘটনা কাউকে না জানাতে শিশুটিকে হুমকি দেয়া হয়েছে। এমনকি ওই ঘটনার পর শিশুটি অসুস্থ হলেও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ তাকে কোনো ধরনের চিকিৎসার ব্যবস্থা করেনি।পরে শিশুটিকে ওইদিন (সোমবার) রাতে শের-ই বাংলা মেডিকেলের শিশু সার্জারিতে ভর্তি করেন তারা। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের কঠোর বিচার দাবী করেন তিনি। শের-ই বাংলা মেডিকেলে দায়িত্বরত মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. নাজমূল হুদা জানান, বলৎকারে অসুস্থ শিশুটিকে শিশু সার্জারি থেকে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় ওসিসিতে স্থানান্তর করা হয়েছে।

সেখানে তার চিকিৎসা চলছে। রূপাতলী দারুস সুন্নাহ্ কওমী মাদ্রাসার প্রিন্সিপ্যাল মাওলানা মো. মজিবর রহমান জানান, শিশুটিকে বলৎকারের খবর তারা জানতেন না। অভিযোগ ওঠার পর অভিযুক্ত শিক্ষক আরিফুল ইসলামকে সোমবার সকালে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি। বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানার ওসি নুরুল ইসলাম জানান, এই ঘটনায় যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin