পুরাতন এলাকায় রিকশার লাইসেন্স দেওয়া হবে না

সিটি নিউজ ডেস্ক:: যানজটের কারণ হিসেবে রিকশাভ্যানকে দায়ী করে দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীতে বাহনটির নতুন লাইসেন্স দেওয়া বন্ধ রেখেছে দুই সিটি করপোরেশন। কিন্তু রাজস্ব বাড়ানোর কথা চিন্তা করে এবার সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। তবে নতুন করে রিকশার নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু করলেও ভিন্ন পরিকল্পনা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি)। ডিএনসিসি বলছে, নগরীতে যে পরিমাণ রিকশা রয়েছে তা অনেক বেশি। যানজট সৃষ্টিতে এই রিকশার ভূমিকা রয়েছে। তাই পুরাতন এলাকায় কোনও রিকশার লাইসেন্স দেওয়া হবে না। তবে সংস্থাটিতে ব্যাটারি বা যন্ত্রচালিত অযান্ত্রিক বাহনগুলো নিষিদ্ধ করায় নতুন যুক্ত হওয়া ওয়ার্ডগুলোতে কিছু নিবন্ধন দেওয়া হবে।

সংস্থাটির মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘নতুন এলাকায় কোনও রিকশা নিবন্ধন দেবো না। তবে বর্তমানে যন্ত্রচালিত রিকশা নিষিদ্ধ করায় ডিএনসিসিতে নতুন যুক্ত হওয়া এলাকাগুলোতে মানুষের চলাচলে কষ্ট হবে। সেই চিন্তা থেকেই সেখানে কিছু লাইসেন্স দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমাদের পুরানো ওয়ার্ডগুলোতে কোনও রিকশার লাইসেন্স আমরা দেবো না।’

দুই সিটি করপোরেশনের তথ্য মতে, রাজধানীতে লাইসেন্সধারী রিকশা ও ভ্যানের সংখ্যা ৭৯ হাজার ৫৫৪টি। যদিও বাস্তবে এই সংখ্যা প্রায় ১১ লাখ। রিকশাকে যানজটের কারণ হিসেবে উল্লেখ করে ১৯৮৬ সাল থেকে গত ৩৪ বছরে এসব অযান্ত্রিক বাহনের (রিকশা ও ভ্যান) নতুন লাইসেন্স দেওয়া বন্ধ রাখে সিটি করপোরেশন। যদিও এই সময়ে প্রতিদিনই রাস্তায় নেমেছে নতুন বাহন। এ অবস্থায় ‌‘অবৈধ’ এসব বাহনের নিবন্ধন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

চলতি অর্থবছর এই খাত থেকে ২৪ কোটি টাকা রাজস্ব আয় ধরেছে দক্ষিণ সিটি। তবে উত্তর সিটি এ থেকে নতুন করে কোনও রাজস্ব আয় ধরেনি। একইসঙ্গে সিটি করপোরেশন এলাকায় মোটর, যন্ত্র, ইঞ্জিন বা ব্যাটারিচালিত রিকশা ও ভ্যান চলাচল নিষিদ্ধ করেছে। দক্ষিণ সিটি করপোরেশন বলছে, লাইসেন্স না থাকলেও অযান্ত্রিক অবৈধ এসব বাহন বন্ধ হচ্ছে না। তাই এগুলোকে নিবন্ধন দেওয়ার পাশাপাশি শৃঙ্খলার মধ্যে এনে পরিচালনা করা হবে।

অযান্ত্রিক বাহনকে নিবন্ধন দেওয়ার জন্য একটি গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ডিএসসিসি। এতে বলা হয়েছে, ‘ডিএসসিসির আওতাধীন এলাকায় চলাচলরত অযান্ত্রিক যানবাহনকে নিবন্ধনের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। নিবন্ধন গ্রহণে আগ্রহী রিকশা, ব্যক্তিগত রিকশা, ভ্যানগাড়ি, ঠেলাগাড়ি, টলিগাড়ি, ঘোড়ার গাড়ি অর্থাৎ অযান্ত্রিক যানবাহন মালিকদের নিবন্ধন, নবায়ন ও মালিকানা পরিবর্তনের ক্ষেত্রে বর্ণিত নিয়মাবলি অনুসরণ করতে অনুরোধ করা হলো।’

নতুন নিয়ম অনুযায়ী নিবন্ধন, নবায়ন ও মালিকানা পরিবর্তনের জন্য নির্ধারিত আবেদনপত্রে আবেদন করতে হবে। প্রতিটি আবেদনপত্রের মূল্য ১০০ টাকা (অফেরতযোগ্য)। আবেদনপত্র সংগ্রহ ১৩ সেপ্টেম্বর শুরু হয়ে ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে। এ বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আরিফুল হক (উপসচিব) বলেন, ‘অযান্ত্রিক যানবাহন নিবন্ধনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এজন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। নগরীতে কী পরিমাণ নিবন্ধন দেওয়া হবে সেটি কমিটি সিদ্ধান্ত নেবে। আর নিবন্ধন বা লাইসেন্স ফি কত হবে তাও পরে জানানো হবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin