ধর্ষকের শাস্তির দাবিতে আদিবাসী ছাত্র পরিষদের মানববন্ধন

সিটি নিউজ ডেস্ক:: রাজশাহীর তানোর উপজেলায় গির্জায় আদিবাসী এক কিশোরীকে তিনদিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ফাদার প্রদীপ গ্রেগরীর শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর সাহেববাজার এলাকায় এর আয়োজন করে আদিবাসী ছাত্র পরিষদ।

মানববন্ধনে বক্তারা ফাদার প্রদীপ গ্রেগরীর সর্বোচ্চ শান্তির দাবি জানান। একই সঙ্গে ধর্ষণের ঘটনা সালিশে মীমাংসার চেষ্টা করায় তানোরের মুন্ডুমালা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কমেল মার্ডিকেও শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানান। এছাড়া বক্তারা ভুক্তভোগী কিশোরী এবং তার পরিবারের নিরাপত্তারও দাবি জানান।মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, মুক্তিযোদ্ধা প্রশান্ত কুমার সাহা, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফোকলোর বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আমিরুল ইসলাম কনক, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির জেলা সভাপতি শাজাহান আলী বরজাহান, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির আহ্বায়ক রিদম শাহরিয়ার ও ছাত্রনেতা তামিম সিরাজী।

আদিবাসী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নকুল পাহান মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য রাখেন- সাধারণ সম্পাদক তরুন মুন্ডা, রাজশাহী কলেজ কমিটির সভাপতি সাবিত্রী হেমব্রম, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার মাহাতো, দিলিপ পাহান প্রমুখ।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক গনেশ মার্ডি, সাংগঠনিক সম্পাদক বিমল চন্দ্র রাজোয়াড়, দপ্তর সম্পাদক সুভাষ চন্দ্র হেমব্রম, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুসেন কুমার শ্যামদুয়ার, গোদাগাড়ী উপজেলা কমিটির সভাপতি রবীন্দ্রনাথ হেমব্রম, কেন্দ্রীয় সদস্য বিভূতী ভূষণ মাহাতো, আদিবাসী যুব পরিষদের জেলা সভাপতি উপেন রবিদাস প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ২৬ থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তানোরের মুন্ডুমালা এলাকার একটি গির্জায় এলাকার এক কিশোরীকে (১৫) আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়। ঘটনা জানাজানি হলে গ্রাম্য সালিশে ফাদারকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করে পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দেয়া হয়। এনিয়ে থানায় মামলা হলে র‌্যাব অভিযুক্ত ফাদারকে রাজশাহী মহানগরীর একটি বিশপ হাউজ থেকে গ্রেফতার করে।

বিডি প্রতিদিন/ আবু জাফর

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin