আগৈলঝাড়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে দলবেধে ধর্ষণ,ভিডিও ধারন:মামলা

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি :: বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলায় প্রবাসীর স্ত্রীকে গণধর্ষণ শেষে ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া ভয়ভীতি দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্থানীয় কয়েকজন বখাটে যুবকের বিরুদ্ধে। উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের দক্ষিণ চাদত্রিশিরা গ্রামের সাদেক ভাট্টির ছেলে আনিচুর রহমান ভাট্টি সহযোগীসহ একই এলাকার প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে। পরে তার বন্ধু হালিম হাওলাদারও গৃহবধূকে ধর্ষণ করে এবং ভিডিওচিত্র মুঠোফোনে ধারণ করে।

এই ভিডিওচিত্র ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়াসহ গৃববধূর স্বামীর কাছে পাঠানোর হুমকি দিয়ে দুজনে বিভিন্ন সময় ৩৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। এমন অভিযোগ এনে মঙ্গলবার গৃহবধূ আগৈলঝাড়া থানায় ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফি আইনে একটি মামলা করেছেন। মামলার বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের দক্ষিণ চাদত্রিশিরা গ্রামের সাদেক ভাট্টির ছেলে আনিচুর রহমান ভাট্টি চলতি বছরের ২ জানুয়ারি রাতে পুলিশ তাদের ধাওয়া করছে বলে একই এলাকার এক প্রবাসীর ঘরে প্রবেশ করে।

এসময় নজর আলী হাওলাদারের ছেলে তার সহযোগী হালিম হাওলাদার বাইর থেকে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। পরে আনিচুর রহমান প্রবাসীর স্ত্রীর কাছে পানি খেতে চায়। তিনি পানি নিয়ে ঘরের দ্বিতীয় তলায় গেলে প্রবাসীর স্ত্রী তিন সন্তানের জননীকে ধর্ষণ করে আনিচুর রহমান। এবং তা মুঠোফোনে ধারণ করে রাখে। পরবর্তীতে আনিচের সাথে থাকা তার সহযোগী হালিম হাওলাদারও ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

এতে ব্যর্থ হলে ধর্ষণের ভিডিও প্রবাসে থাকা তার স্বামীর কাছে পাঠানোসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে। এবং পরবর্তীতে এমন ভয়ভীতি দেখিয়ে গৃহবধূকে বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করাসহ ৩৫লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে মঙ্গলবার সকালে আগৈলঝাড়ায় থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন এবং পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর- ১০।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin