মুক্তিযোদ্ধা শওকত আলী ও শেখ রাজিয়া নাসেরের মৃত্যুতে বরিশাল জেলা আ’লীগের শোক

খবর বিজ্ঞপ্তি ::

আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার আসামী, নবম জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার কর্নেল (অব.) বীরমুক্তিযোদ্ধা শওকত আলী ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একমাত্র ভাই প্রয়াত শেখ আবু নাসেরের সহধর্মিণী, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এসপি’র চাচী শেখ রাজিয়া নাসের এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছে বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগ।

মঙ্গলবার এক শোকবার্তায় গভীর শোক ও দুুঃখ প্রকাশ করেছেন পার্বত্য শান্তিচূক্তি বাস্তবায়ন ও পরীবিক্ষণ কমিটির আহবায়ক (মন্ত্রী) এবং বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জননেতা আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এমপি এবং সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তালুকদার মো: ইউনুস।

এসময় নেতৃবৃন্দ মরহুম ও মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

প্রসংগত, সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) মৃত্যুবরণ করেন বীরমুক্তিযোদ্ধা শওকত আলী। তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। সাবেক এই ডেপুটি স্পিকার শরীয়তপুর-২ আসন থেকে ৫ পাঁচবার জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক কন্যাসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। এর আগে (২৯ অক্টোবর) তাকে কিডনি, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ বার্ধক্যজনিত সমস্যার কারণে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

এদিকে সোমবার রাত ৮টা ৫০ মিনিটে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন শেখ রাজিয়া নাসের। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। তিনি পাঁচ ছেলে ও দুই মেয়েসহ অনেক আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন।

শেখ রাজিয়া নাসের বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলালউদ্দিন ও খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সালাউদ্দিন জুয়েলের মা এবং বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়ের দাদী ছিলেন।

এর আগে গত ৫ নভেম্বর বার্ধক্যজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার জোহরের পর বনানী কবরস্থানে জানাজার পর তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin