প্রত্যন্ত অঞ্চলের সাধারন মানুষকে সেবা দিতে চাই-ডিসি খাইরুল আলম

সিটি নিউজ ডেস্ক::কাউনিয়া থানা এলাকার পুরানপাড়ার মতাসার বিট পুলিশিং কার্যালয় উদ্ধোধন কালে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার উত্তর মোঃ খাইরুল আলম বলেছেন,মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার এই শ্লোগানকে সামনে রেখে আমরা জনতার পুলিশ হতে চাই।আমরা মানবিক পুলিশ হতে চাই।এই মুজিব বর্ষে আমরা নিজেদেরকে পরিবর্তন করে বিট পুলিশিংয়ের মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলের সাধারন মানুষকে সেবা দিতে চাই।আগে যেখানে মানুষকে পুলিশের সেবার জন্য থানায় যেতে হতো এখন আর কষ্টকরে কাউকে থানায় যেতে হবেনা। প্রত্যেক এলাকার বিট অফিসার সাধারন মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে নির্ভেজাল সেবা পৌছে দেবে।সাধারন মানুষের সেবা নিশ্চিত করতে আমরা স্বচ্ছতা এবং জবাবদিহিতামূলক পুলিশ প্রশাসন গড়ে তুলতে চাই।

আজ রবিবার (২২নভেম্বর) বিকালে কাউনিয়া থানা এলাকার পুরানপাড়ার মতাসার বিট পুলিশিং কার্যালয় উদ্ধোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।এর আগে পায়রা উড়িয়ে ও ফিতা কেটে বিট পুলিশিং কার্যালয়ের উদ্ধোধন করেন উপ- পুলিশ কমিশনার উত্তর মোঃ খাইরুল আলম।এ সময় তিনি আরও বলেন,থানায়, জিডি,অভিযোগ বা মামলা করতে কোন প্রকার ফি লাগেনা।কেউ কোন প্রকার ফি চাইলে আমাদেরকে তার সম্পর্কে তথ্যদিয়ে সহযোগিতা করুন।পুলিশের কোন সদস্য যদি অপরাধের সাথে জড়ায় তার শাস্তি নিশ্চিত করতে আমরা কাজ করছি।পুলিশ যাতে অকারনে কাউকে নির্যাতন করতে না পারে সে লক্ষ্য দুর্নীতি ও মাদক মুক্ত পুলিশ প্রশাসন গড়ে তুলতে চাই।এ সকল পদক্ষেপ গ্রহন করার মাধ্যমে আমরা একটা পুলিশি হয়রানি ও অপরাধমুক্ত সমাজ ব্যাবস্থা গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছি।বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কাউনিয়া থানার সহকারী কমিশনার মোঃ মাসুদ রানা বলেন,থানার একটি অংশ হচ্ছে বিট পুলিশিং। এর মাধ্যমে আমরা পুলিশের সেবা আপনাদের দোড়গোড়ায় পৌছে দিতে চাই।

প্রত্যেক এলাকার মানুষ যদি বিট অফিসারকে তথ্য দিয়ে সহায়তা করে তাহলেই সমাজ থেকে সন্ত্রাস সহ সকল প্রকার অপরাধ দুর করে অপরাধ মুক্ত সমাজ গড়া সম্ভব হবে।ছিনতাই এলাকায়,চুরি,ডাকাতি,সন্ত্রাস,ইভটিজিং ও নারী নির্যাতন সম্পর্কে তথ্য দিয়ে পুলিশের তথ্য ভান্ডারকে সমৃদ্ধ করুন।আমরা সমাজের ভাল মানুষের বন্ধু হতে চাই।সমাজকে গতিশীল করতে হলে নারী পুরুষ সবাইকে একসাথে এগিয়ে যেতে হবে।তাহলেই আমরা একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে পারবো।অনুষ্ঠানে সভাপতি কাউনিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ আজিমুল করিম বলেন, একটি থানা বিস্তৃত এ লাকা নিয়ে গঠিত হয়।

দুর দুরান্তে যখন কোন ঘটনা ঘটে তখন মানুষ ঠিক ভাবে থানায় পৌছাতে পারেননা অথবা নানা রকম ঝামেলার কারনে মানুষ থানায় যেতে চায়না এ কারনেই প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সেবা নিশ্চিত করতেই বিট পুলিশিং ব্যাবস্থা করা হয়েছে। প্রত্যক এলাকার বিট অফিসার হবে সাধারন মানুষের অত্যন্ত কাছের ও আপন মানুষ।এলাকার সবরকম ঘটনা সম্পর্কে বিট অফিসারকে জানাতে হবে।তাহলেই আপনারা বিট পুলিশিং কার্যক্রমের সুফল পাবেন।কাউনিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ লোকমান হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন, বিসিসি ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সৈয়দ হাবিবুর রহমান ফারুক,৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ মজিবর মৃধা প্রমুখ।সুত্র,ক্রইম ট্রেস

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin