কাবিনের টাকা বাড়ানোর নামে ধর্ষণ করলো কাজি!

সিটি নিউজ ডেস্ক:: ঢাকার ধামরাইয়ে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় ইউসুফ আলী নামে এক নিকাহ রেজিস্ট্রারের (কাজি) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার কাজিকে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

গতকাল রোববার ঢাকার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মিশকাত শুকরানা এ রিমান্ডের আদেশ দেন।
গত ৩ ডিসেম্বর বিকেলে ধামরাই পৌরসভার চন্দ্রাইল থেকে ইউসুফকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরদিন আদালত এ আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়ে রোববার রিমান্ড শুনানির দিন ঠিক করেন। 
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ধামরাই থানার এসআই মো. একেএম সাইদুজ্জামান আসামির ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন। রোববার রিমান্ড শুনানিকালে আসামি ইউসুফকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়।


আসামির পক্ষে অ্যাডভোকেট সহিদুল ইসলাম রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। তিনি বলেন, ‘আসামি ঘটনার সাথে জড়িত না। অহেতুক হয়রানির জন্য কথিত ঘটনার সাথে জড়িত করা হয়েছে। ঘটনার দিন তিনি ওই স্থানে উপস্থিত ছিলেন না। তার রিমান্ড বাতিলপূর্বক জামিন প্রার্থনা করছি।’
রাষ্ট্রপক্ষ থেকে এর বিরোধিতা করা হয়। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে দুই দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।
মামলায় বলা হয়, প্রায় এক মাস আগে বিয়ের কাবিনের অর্থের পরিমাণ বাড়িয়ে ১ লাখ থেকে ৩ লাখ টাকা করার কথা বলে ওই গৃহবধূকে কাজি অফিসে ডেকে নেন ইউসুফ আলী। ওই নারী সেখানে গেলে কাগজ অফিসে নেই জানিয়ে তাকে পৌর এলাকায় নিজ ভাড়া বাসায় নিয়ে যান ইউসুফ। পরে তাকে ধর্ষণ করেন। ওই সময় বাসায় অন্য কেউ ছিলেন না।
এ ঘটনায় ৩ ডিসেম্বর ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। ইউসুফ আলী (৪৫) ধামরাই পৌর এলাকার নতুন দক্ষিণ পাড়া মহল্লার আমির হোসেনের বাড়ির ভাড়াটিয়া। তিনি নেত্রকোনার পূর্বধলা থানার হাঁপানিয়া গ্রামের মৃত লাল মাহমুদের ছেলে। 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin