বরিশাল মেট্রো পুলিশের মাদকাসক্ত সদস্যদের কপাল পুড়ছে,টেস্টে ১৭ জন পজেটিভ, গ্রেফতার- ৫

সিটি নিউজ ডেস্ক:: বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের মাদকাসক্ত সদস্যদের কপাল পুড়ছে। এরই মধ্যে ডোপ টেস্টে পজেটিভ হয়েছেন ১৭ জন সদস্য। এদের মধ্যে সরাসরি মাদক ব্যবসায় জড়িত ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। স্থায়ীভাবে চাকরীচ্যুত হয়েছেন অন্তত ৪ জন। একই অভিযোগে আরও প্রায় ১০ জনকে চাকুরীচ্যুত করার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। ২০১৯ সালের অক্টোবর থেকে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশে শুরু হয় ডোপ টেস্ট প্রক্রিয়া।

গত ১৫ মাসে ৪৮ জন সন্দেহভাজন পুলিশ সদস্যের ডোপ টেস্টে ১৭ জনের রিপোর্ট পজেটিভ হয়। এদের মধ্যে কনস্টেবল থেকে এএসআই পর্যায়ের ৪ জন স্থায়ীভাবে চাকুরীচ্যুত হয়েছেন। মাদক বিক্রিতে জড়িত থাকায় মামলা দিয়ে ৫ সদস্যকে পাঠানো হয়েছে কারগারে। মাদকাসক্ত সদস্যদের ধরতে পুলিশের প্রতিটি ইউনিটে গোয়েন্দা নিয়োগ করা হয়েছে। ইউনিট প্রধানরা কাউকে সন্দেহ করলে তারা গোপনে কমিশনার কার্যালয়ে মাদকাসক্ত কিংবা মাদক কারবারী পুলিশের তালিকা প্রেরন করেন।

পরে অভিযুক্তদের কৌশলে ডেকে এনে ডোপ টেস্ট করা হয়। যাদের রিপোর্ট পজেটিভ হয় তাদের কিছুদিন পর আবার ডোপ টেস্ট হয়। চূড়ান্তভাবে নিশ্চিত হতে তৃতীয়বারের মতো করা হয় ডোপ টেস্ট। ডোপ টেস্টে কারোর রিপোর্ট পজেটিভ হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত এবং বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। করা হচ্ছে চাকুরীচ্যুত। ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশে প্রায় ১ হাজার ৭শ’ সদস্য কর্মরত রয়েছে। মাদক বিরোধী সাম্প্রতিক এ্যাকশনে মাদক সংশ্লিস্টরা এখন চাকুরী হারানোর আতঙ্কে আছেন।সুত্র, রাহাত খান বরিশাল।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin