বরিশালে যুবদলের প্রস্তুতি সভায় দু’গ্রুপের হাতাহাতি-অফিস ভাংচুর

সিটি নিউজ ডেস্ক:: বরিশালে যুবদলের কর্মী সভা আয়োজনের প্রস্তুতি সভায় দু’গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি, চেয়ার ছোড়াছুড়ি ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার (২৫ ডি‌সেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে নগরের সদর রোডের বিএনপি দলীয় কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বরিশাল জেলার বিভিন্ন উপজেলা কমিটির কর্মী সভা আয়োজনের জন্য রাতে দলীয় কার্যালয়ে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মহানগর যুবদলের দুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি এবং চেয়ার ছোড়াছুড়ির ঘটনা ঘটে। এ সময় মহানগর যুব দলের সিনিয়র যুগ্ম  সম্পাদক মাজহারুল ইসলামের ওপর সাধারণ সম্পাদক মাসুদ হাসান মামুন গ্রুপ চড়াও হয়। ভাঙচুর করা হয় অন্তত ৬টি চেয়ার। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। সেখানে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

মহানগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান পলাশ বলেন, যুবদলের কেন্দ্রীয় নেতারা জেলা যুবদলের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করছিলো পার্টি অফিসে। এসময় আমরা কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছ কিছু সময় নিয়ে তাদের সঙ্গে কথা বলতে বসি। এসময় হঠাৎ করে মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাসুদ হাসান মামুনের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী বাহিনী আওয়ামী লীগের ইন্ধনে আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে এবং পার্টি অফিস ভাঙচুর করেছে। ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখতে আমাদের ওপর এ হামলা চালানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে মাজহারুল ইসলাম জাহান বলেন, সামনে আমাদের কর্মীসভা উপলক্ষে মতবিনিময় সভাতে অংশগ্রহণ করি আমরা। সেখানে দলের সম্পাদক মাসুদ হাসানের বিভিন্ন স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ করা হলে তিনি উত্তেজিত হয়ে ওঠেন এবং তার অনুসারীদের নিয়ে আমার ওপর হামলা চালান। এতে আমিসহ যুবদলের ১০ কর্মী আহত হয়েছেন।

ঘটনার ব্যাপারে মাসুদ হাসান মামুনের বক্তব্য নেওয়ার জন্য বার বার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।  

তবে হাতাহাতির ব্যাপারে জেলা যুবদল সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লব উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, ‘এক ঘরে একাধিক ভাই থাকলে একটু ঝগড়া হতেই পারে৷ এটা বড় কোন ঘটনা নয়।

এদিকে, ঘটনার পরপরই বিএনপি কার্যালয়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin