অনলাইনে ব্যবসা,বরিশালে স্বাবলম্বী অর্ধশত নারী উদ্যোক্তা

পুলক চ্যাটার্জি অতিথি প্রতিবেদক :: অনলাইন ব্যবসায় স্বাবলম্বী তারা ‘বাই অ্যান্ড সেল বিজনেস কমিউনিটি’র টিম বরিশালের মিলন মেলা করোনা সংকটের মধ্যে অনলাইন ব্যবসায় ক্রেতাদের যথেষ্ট সাড়া পাচ্ছেন বরিশালের নারী উদ্যোক্তারা। তারা বলেছেন, দিন দিন অনলাইন ব্যবসার প্রতি মানুষের আগ্রহ ও আস্থা বাড়ছে। গত বুধবার বরিশাল শহরের একটি রেস্তোরাঁয় অনুষ্ঠিত হয় অনলাইন উদ্যোক্তা গ্রুপ ‘বাই অ্যান্ড সেল বিজনেস কমিউনিটি’র টিম বরিশালের মিলন মেলা। অর্ধশত নারী উদ্যোক্তা এতে অংশগ্রহণ করে তাদের অভিজ্ঞতা, সমস্যা-সংকট ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেন। এসব উদ্যোক্তার মধ্যে আছেন গৃহবধূ, শিক্ষার্থী এবং উচ্চশিক্ষা শেষ করা নারীরা।

তারা অনলাইনে বিক্রি করছেন খাদ্যসামগ্রী, মাটির তৈজসপত্র, গাছের চারা, ল্যাপটপ, পোশাক সামগ্রী প্রভৃতি। ‘বাই অ্যান্ড সেল বিজনেস কমিউনিটি’র টিম বরিশালের মডারেটর মণীষা ঘোষ পূজা ও তানজিলা শারমিন বলেন, আমাদের লক্ষ্য নতুন উদ্যোক্তাদের মধ্যে ব্যবসা পরিচালনার কৌশল প্রচার করা। তাদের সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সমাধানের পথ খুঁজে দেওয়া। পড়াশোনা শেষ করে নারীরা যাতে উপার্জনের পথ নিজেরাই সৃষ্টি করতে পারেন সে রকম সুযোগ তৈরি করা। নগরীর নতুন বাজার এলাকার গৃহবধূ সাথী কুণ্ডু টিম বরিশালের সঙ্গে যুক্ত হয়ে শুরু করেন অনলাইনে মাটির পণ্য বিক্রি। তিনি পটুয়াখালীর বাউফল ও বাকেরগঞ্জের মহেষপুর থেকে মানসম্মত ও চাহিদা অনুযায়ী মাটির পণ্য এনে ক্রেতাদের সরবরাহ করছেন। মাসে প্রায় ২০ হাজার টাকার পণ্য বিক্রি হয়। এতে ৪০ শতাংশ লাভ হচ্ছে।

ব্রজমোহন কলেজ থেকে হিসাববিজ্ঞানে অনার্স শেষ করেছেন ফারজানা আক্তার। অনলাইনের মাধ্যমে দেশের বাইরে থেকে ল্যাপটপ সংগ্রহ করে বিক্রি করছেন। তিনি বলেন, বাজারে যথেষ্ট সাড়া পাচ্ছেন তিনি। বিশেষ করে লকডাউন চলাকালে তার বিক্রি ভালো হয়েছে। গৃহবধূ রোকসানা আইভি বিক্রি করেন খাদ্যপণ্য। পরিবারের সবাই তাকে সহযোগিতা করছেন। প্রতিদিন ১০-১৫টি অর্ডার পান অনলাইনে। পোশাক সামগ্রী বিক্রি করেন গৃহবধূ জেবুন্নেছা মনি। এমবিএ শেষ করে স্বামী মাহমুদুর রহমান শুভকে নিয়ে শুরু করেন অনলাইন ব্যবসা। প্রতিদিন যথেষ্ট অর্ডার পাচ্ছেন তিনি। ব্যবসার আরও প্রসার করতে চান জেবুন্নেছা। ব্রজমোহন কলেজের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী তাছরিন নেওয়াজ পড়াশোনার পাশাপাশি উপার্জনের জন্য টিম বরিশালের সঙ্গে যুক্ত হয়ে গাছের চারা বিক্রি শুরু করেন অনলাইনে। পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি ও বরিশালের কাশীপুরের নার্সারি থেকে ক্রেতাদের চাহিদামতো চারা সংগ্রহ করে সরবরাহ করছেন। প্রতিদিন যথেষ্ট অর্ডার পাচ্ছেন তিনি।সুত্র সমকাল

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin