এই ভ্যাকসিনে দেশ করোনামুক্ত হবে: প্রধানমন্ত্রী

সিটি নিউজ ডেস্ক: করোনার এই ভ্যাকসিনের মাধ্যমে দেশবাসী করোনামুক্ত হবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি জানান, সারা বাংলাদেশেই পর্যায়ক্রমে ভ্যাকসিন দেয়া হবে।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) বিকেলে দেশে করোনা ভ্যাকসিন দেয়ার আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়ার উদ্বোধন করে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি এ প্রোগ্রামের উদ্বোধন করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী জানান, তিন কোটি ৪০ লাখ ডোজ কেনা হয়েছে। এরপর এগুলো সময়মতোই আসতে থাকবে। কোনো সমস্যা হবে না।

তিনি বলেন, এটা ঐতিহাসিক দিন। কেননা, অনেক দেশ এখনো ভ্যাকসিন পায়নি। সেখানে অর্থনৈতিক সীমাবদ্ধতা সত্বেও বাংলাদেশে ভ্যাকসিন আমদানি করেছে সরকার।

নার্স বেরোনিকা কস্তার দেহে টিকা প্রয়োগের মাধ্যমে টিকাদান শুরু করা হয়। দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে টিকা নেন ড. আহমেদ লুৎফুল মোবেন। এরপর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা টিকা গ্রহণ করেন।

চতুর্থ এবং পঞ্চম ব্যক্তি হিসেবে টিকা নেন পুলিশ সদস্য দিদারুল ইসলাম এবং সেনা কর্মকর্তা বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এম ইমরান হামিদ।

প্রথম দিন দেয়া হচ্ছে ৩০ জনকে।

এর আগে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে বেলা সাড়ে ১১টায় পৌঁছায় ভ্যাকসিনের ভায়াল। সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচি-ইপিআই এর স্টোর থেকে কোল্ডবক্সে ২০টি ভায়েলে ২০০ ডোজ কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন আনা হয়। ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত এগুলো সংরক্ষণ করা হবে এখানে। সংশ্লিষ্টরা জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রটোকল অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে প্রয়োগ করা হবে ভারত থেকে নিয়ে আসা এ প্রতিষেধক। প্রথম দিন দেয়া হচ্ছে ৩০ জনকে।

এদিকে, সারাদেশে একযোগে ৭ ফেব্রুয়ারি করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরু হবে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin