ভোটের মধ্যে গুলিবর্ষণকারী এই যুবক কে, খুঁজছে পুলিশ

সিটি নিউজ ডেস্ক: চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণের সময় পাথরঘাটা ওয়ার্ডে প্রকাশ্যে পিস্তল হাতে এক যুবকের গুলিবর্ষণের একটি ভিডিও পাওয়া গেছে।

একটি গলি থেকে বেরিয়ে ওই যুবককে পিস্তল উঁচিয়ে গুলি ছুড়তে দেখা যায়।

ওই যুবকের পরিচয় পাওয়া যায়নি। পুলিশ বলছে, তারা ভিডিওটি সংগ্রহ করেছে এবং ওই যুবকবে চিহ্নিত করার কাজ চালাচ্ছে।

প্রাণক্ষয়ী সংঘাতের মধ্যে বুধবার চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

ভোটের সময় ৩৪ নম্বর পাথরঘাটা ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী পুলক খাস্তগীরের অনুসারীদের সঙ্গে বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী ইসমাইল বালির সমর্থকদের মধ্যে কয়েক দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

ভাংচুর করা হয় পাথরঘাটা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের ইভিএম মেশিন। এসময় বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী ইসমাইল বালিকে আটক করা হয়। পরে ইভিএম ভাংচুরের ঘটনায় হওয়া মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ।

পরে ওই স্কুলের দুটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত রাখা হয়। যার কারণে ৩৪ নম্বর পাথরঘাটা ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীর ফলাফল ঘোষণাও স্থগিত রাখা হয়েছে।

কেন্দ্রের সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার বাদি হয়ে করা মামলায় বালিকে প্রধান আসামি করা হয়। যে মামলায় বালিকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

ভিডিওটিতে দেখা যায়, সরু একটা গলি থেকে বের হয়ে পিস্তল হাতে গুলি ছুড়ছেন কালো প্যান্ট, হলুদ-কালো জ্যাকেট পরা ওই যুবক। এরপর দলবল নিয়ে বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী ইসমাইল বালির নেতৃত্বে ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাকে ধাওয়া করা হয়।

ভিডিওটির বিষয়ে জানতে চাইলে কোতোয়ালী থানার ওসি নেজাম উদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “পুলিশ ভিডিওটি সংগ্রহ করেছে। গুলি ছোড়া যুবককে শনাক্ত করতে কয়েকটি টিম কাজ করছে।”

এদিকে চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে বিভিন্ন ওয়ার্ডে এ ধরনের অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার হয়েছে বলে খবর মিলেছে। ১৩ নম্বর পাহাড়তলী ওয়ার্ডের আমবাগান এলাকায় গুলিতে নিহত হন এক যুবক।

এ ঘটনায় মামলা হলেও অস্ত্রের হদিস কিংবা হামলাকারী কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin