বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ ও বর্জনে ৬৩ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ

সিটি নিউজ ডেস্ক: দেশে তৃতীয় ধাপে ৬৩টি পৌরসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এখন চলছে ভোটগণনা। অনেক পৌরসভায় সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট শেষ হয়েছে। কিন্তু কয়েকটি পৌরসভায় সংঘর্ষ, মারামারি ও ভোট বর্জনের ঘটনাও ঘটেছে।

কটিয়াদীতে সংঘর্ষ, রামগঞ্জে গোলাগুলি, ধুনটে ও ফেনীতে প্রার্থীকে মারধর এবং গৌরীপুরে ভোট জালিয়াতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া সিংড়া, দর্শনা, কটিয়াদী, কলারোয়া, সরিষাবাড়ীসহ বেশ কয়েকটি পৌরসভায় বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা অনিয়মের অভিযোগ তুলে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।

ইসি সচিবালয় জানিয়েছে, এবারের চূড়ান্ত লড়াইয়ে মোট তিন হাজার ৩৪৪ প্রার্থী রয়েছেন। এরমধ্যে মেয়র পদে ২২৯ জন, সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৭৫৫ এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৩৬০ জন। তৃতীয় ধাপে ৬৪ পৌরসভা নির্বাচনে তিন পদে মোট বৈধ প্রার্থী ছিল ৩৫৫০ জন। এরমধ্যে মেয়র পদে ২৫৭ জন, সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৭৭২ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৫২১ জন প্রার্থী ছিলেন। তিন পদে মোট মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন ৩৭১৫ জন। যাচাই-বাছাইয়ে বাদ পড়েছেন ১৬৫ জন। তবে ময়মনসিংহের ত্রিশাল পৌরসভায় তৃতীয় ধাপে ভোট হওয়ার কথা থাকলেও এক মেয়র প্রার্থীর মৃত্যুতে এ নির্বাচন স্থগিত করে চতুর্থ ধাপে স্থানান্তর করা হয়েছে। ফলে তৃতীয় ধাপে ৬৩ পৌরসভায় ভোট হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া, কুমিল্লার লাকসাম ও বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ পৌরসভায় মেয়র পদে একক প্রার্থী থাকায় তারা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এ ধাপে তিন পদে ৩৭ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

মহামারির মধ্যে এবার পাঁচ ধাপে পৌরসভা নির্বাচন করছে কমিশন। প্রথম ধাপের তফসিলের ২৪টি পৌরসভায় ইভিএমে ভোট হয় ২৮ ডিসেম্বর। ১৬ জানুয়ারি দ্বিতীয় ধাপে ৬০টি পৌরসভায় ভোট হয়। চতুর্থ ধাপে ৫৭ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ হবে ১৪ ফেব্রুয়ারি এবং পঞ্চম ধাপের ৩১ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ হবে ২৮ ফেব্রুয়ারি।

শনিবার যে ৬৩ পৌরসভায় ভোট:

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ, নওগাঁর ধামইরহাট ও নওগাঁ; সিলেটের গোলাপগঞ্জ, বগুড়ার ধুনট, গাবতলী ও কাহালু; রাজশাহীর মুণ্ডুমালা, মৌলভীবাজারের মৌলভীবাজার, ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর, বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ, কুমিল্লার লাকসাম, চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ, ফেনীর ফেনী, মুন্সীগঞ্জের মুন্সীগঞ্জ, শরীয়তপুরের জাজিরা, ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ, শেরপুরের নকলা, নাটোরের সিংড়া, রাজশাহীর কেশরহাট, চুয়াডাঙ্গার দর্শনা, ঝালকাঠির নলছিটি, নেত্রকোনার দুর্গাপুর, বগুড়ার নন্দীগ্রাম, যশোরের মনিরামপুর, নোয়াখালীর হাতিয়া, লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ, কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া, টাঙ্গাইলের মধুপুর, শরীয়তপুরের নাড়িয়া, বরগুনার বরগুনা ও পাথরঘাটা; ভোলার বোরহানউদ্দিন, শেরপুরের নালিতাবাড়ী, কুড়িগ্রামের উলিপুর, দিনাজপুরের হাকিমপুর, চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর, নড়াইলের নড়াইল, সাতক্ষীরার কলারোয়া, রাজবাড়ীর পাংশা, পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি, বরিশালের গৌরনদী, জামালপুরের সরিষাবাড়ী, ময়মনসিংহের ভালুকা, গৌরীপুর, সিলেটের জকিগঞ্জ, ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু, টাঙ্গাইলের টাঙ্গাইল ও মির্জাপুর, বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ, কুমিল্লার বরুড়া, নোয়াখালীর চৌমুহনী, শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ, ভোলার দৌলতখান, নীলফামারীর জলঢাকা, পাবনার পাবনা, বগুড়ার শিবগঞ্জ, খুলনার পাইকগাছা, নড়াইলের কালিয়া, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম, টাঙ্গাইলের ভুয়াপুর ও সখীপুর পৌরসভা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin