চাঁদপুর সদর উপজেলার সব ইউপির প্রার্থীই বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

সিটি নিউজ ডেস্ক::সব প্রার্থীই বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী চাঁদপুর সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নের সব প্রার্থীই বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) তাদের বিজীয় ঘোষণা করেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন। বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সেলিম খান। সাধারণ সদস্য পদে ১ নম্বর ওয়ার্ডে দুলাল মিয়া, ২ নম্বর ওয়ার্ডে মনির শেখ, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে সফিক রাঢ়ী, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে হারেজ মজুমদার, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে হারুনুর রশিদ। ৬ নম্বর ওয়ার্ডে শাহ আলম মাঝি, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে হাবিবুর রহমান, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ফারুক মাঝি ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডে জহির হাওলাদার নির্বাচিত হয়েছেন।

একইভাবে সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে হোসনেয়ারা বিউটি, ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডে হাসিনা বেগম ও ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডে সিমা আক্তার বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এর আগে ২০১১ সালে এ ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মো. সেলিম খান নির্বাচিত হন। পরে ২০১৬ সালে নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও সীমানা জটিলতা মামলার কারণে দীর্ঘদিন নির্বাচন স্থগিত থাকে। পরে ২৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। এদিকে ইউপি নির্বাচনে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় সব প্রার্থী বিজয়ী হওয়ায় স্থানীয় ভোটারদের মাঝে হতাশা বিরাজ করছে।

দীর্ঘদিন ভোটবঞ্চিত হওয়ায় এ ইউনিয়নের ভোটারদের মাঝে কিছুটা উৎসাহ দেখা দিলেও তাতে ভাটা পড়েছে। ফারুক গাজী নামের এক ভোটার বলেন, প্রতিদ্বন্দ্বিতা কেনো হলোনা বুঝতে পারছি না। তবে কেউ নির্বাচন না করলে কাউকে তো আর জোর করে প্রার্থী করানো যায় না। আমরা চাই বর্তমান চেয়ারম্যান যেভাবে এলাকার কাজ করছে সামনেও এভাবেই কাজ করবে। শরীফ পাটোয়ারী নামে একজন ভোটার বলেন, আমরা চাই বর্তমান চেয়ারম্যান নির্বাচিত হোক। তারপরও ভোটের ইমেজটা মিস করবো। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন জানান, মনোনয়ন যাচাই-বাছাই শেষে বৃহস্পতিবার প্রতিদ্বন্দ্বিপ্রার্থী না থাকায় তাদের বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin