এবার সহপাঠী কর্তৃক ববি শিক্ষার্থীদের মেসে হামলা চেষ্টা

সিটি নিউজ ডেস্ক: গত ১৭ই ফেব্রুয়ারি নগরীর রূপাতলী এলাকার ভাড়া বাসায় (মেস) বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ববি) শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও মেসে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বুধবার রাত ১২ টার দিকে নগরীর চৌমাথা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। আজ বৃহস্পতিবার ঘটনার ভুক্তভোগী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে চৌমাথা এলাকার করিম কুটির – ২ ভবনে মেস ভাড়া করে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থীর ওপর হামলার চেষ্টা করে স্থানীয় কয়েকজন কিশোর। এ ঘটনার হোতা হিসেবে একই বিশ্ববিদ্যালয়েরই কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের এক শিক্ষার্থীকে দায়ী করেছে তারা। তবে ঘটনাস্থলে পুলিশ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষার্থীরা উপস্থিত হওয়ায় কোন হতাহতের ঘটনা ঘটে নি সেখানে।

ঘটনার ভুক্তভোগী শাহরিয়ার আহমেদ মিলান জানান, রাত ১২ টার দিকে একটি অচেনা নম্বর থেকে ফোন দিয়ে তাকে বাসার নীচে নামতে বলা হয়। কিন্তু তিনি বাসার নিচে না গেলে কয়েকজন কিশোর তার বাসায় হানা দেয়। এসময় তিনি ফোন দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষার্থীদের জানালে তারা পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান। এসময় তাদের হাতে এক কিশোর আটক হয়েছিল বলেও জানান তিনি।

শাহরিয়ার আহমেদ আরো জানান, আটককৃত কিশোর পুলিশের উপস্থিতিতে তাদেরকে জানিয়েছে যে,শাহবাজ মিঞা শোভন নামের বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের এক শিক্ষার্থী তাদেরে ঐ মেসের বাসিন্দাদের ওপর হামলা করানোর জন্য পাঠিয়েছে। শোভনের সঙ্গে ফেসবুকে কথা কাটাকাটির জের ধরে এমনটা করতে পারে বলে ধারণা করছেন শাহরিয়ার আহমেদ।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর সুব্রত কুমার দাস বলেন,বুধবার রাতে নগরীর চৌমাথা এলাকায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে স্থানীয় কিশোরদের একটি ঝামেলার কথা আমাকে ফোন দিয়ে জানানো হয়। আমি তৎক্ষনাৎ সেখানে পুলিশ পাঠালে তারা বিষয়টি সমাধান করে। বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনার ভুক্তভোগীরা লিখিত একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেবার প্রক্রিয়া শুরু করেছে৷

তবে অভিযুক্ত শাহবাজ মিঞা শোভন জানান, কিছুদিন আগে ববি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনায় সৃষ্ট আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছি। তাই আমাকে হেয় করতে ববির সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপে আমার ছবি দিয়ে বিব্রতকর মন্তব্য করছিলো একটি মহল। এঘটনায় কোতয়ালী মডেল থানায় চলতি মাসের ২ তারিখ অভিযোগ দিয়েছি। সেই অভিযোগের ঘটনার বিচারকার্য ধামাচাপা দিতে এই নাটক সাজানো হয়েছে। এতে আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin