বরিশালে ১০ মণ জেলিযুক্ত চিংড়িসহ আটক ২

সিটি নিউজ ডেস্ক: শহরে ১০ মণ জেলিযুক্ত চিংড়িসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টার সময় বরিশাল জেলা মৎস্য অফিস ও সদর নৌ পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে নগরীর পোটরোডের মৎস্য আড়ৎ ট্রাক থেকে ৪০ কয়কসেট জেলি ও চিংড়ি মাছ ট্রাকসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- সাতক্ষীরার পারুলিয়ার দেবহাটা গ্রামের মৃত লিয়াকত বিশ্বাসের ছেলে মো. আবদুল আজিজ ও সাতক্ষীরার পারুলিয়ার দেবহাটার একই গ্রামের মৃত আমজাত হোসেনের ছেলে মো. জাহিদ হোসেন। তাদের মধো আ‌জিজ ট্রাক চালক ও জা‌হিদ হেলপারি।

আটককৃতদের পড়ে বরিশাল সদর নৌ পুলিশের কার্যলায় নিয়ে আসার পড়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এ সময় উপস্থিত থেকে বরিশালের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ দছতগির ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আং মাচিং মারমা, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪২ ধারায় দুইজনকেই ৬ মাসের বিনাশ্রমে কারাদণ্ড দেন।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বরিশাল জেলা মৎস্য কমকর্তা মো. আসাদুল জামান ও বরিশাল ইলিশ মৎস্য কর্মকর্তা বিমল চন্দ্র দাস, বরিশাল সদর নৌ থানার পুলিশের ইন-চার্জ এস আই অলোক চৌধুরী প্রমুখ।

এ বিষয়ে বরিশাল ইলিশ মৎস্য কর্মকর্তা বিমল চন্দ্র দাস নিউজজিকে জানান, একটি ট্রাক সাতক্ষীরা থেকে রাতে বরিশালে আসছে। এমন গোপন সংবা‌দের ভি‌ত্তি‌তে অ‌ভিযান চা‌লি‌য়ে জে‌লিযুক্ত চিংড়ি জব্দ করা হয়। আমারা জেলা মৎস্য অফিস ও নৌ পুলিশ যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে নগরীর পোট রোডের মৎস্য আড়ৎ এলাকায় ট্রাক থেকে ৪০ কয়কসেট জেলি ও চিংড়ি মাছসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে এবং ট্রাকটি জব্দ করা হয়।

তিনি আরো বলেন, ৪০ ককসেট এ প্রায় ৪০০ কেজি এই জেলি চিংড়ি মাছ যা বাজার মৃল্য দুই লাখ টাকা। এই কয়কসেট ভর্তি চিংড়ির মাছ বরিশাল নগরীর ডিসিঘাট এলাকা থেকে টলারে নিয়ে গিয়ে বরিশালের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ দছতগির ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আং মাচিং মারমা এর নিরর্দেশে কীর্তনখোলা নদীতে ধংস করা হয়।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin