অপরাধ দানাবাঁধার আগেই তা নির্মূল করতে-পুলিশ কমিশনার

আজ সকালে নির্মাণাধীন বিএমপি এয়ারপোর্ট থানা ভবন বরিশালে, এয়ারপোর্ট থানা কর্তৃক ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত হয়।
প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের মাননীয় পুলিশ কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান।
এসময় তিনি বিগত ওপেন হাউজ ডে’তে উপস্থাপিত ভুক্তভোগীদের সমস্যার বিপরীতে গৃহীত পদক্ষেপ পর্যালোচনায় দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সরাসরি জবাবদিহিতা নিশ্চিত করেন এবং উপস্থিত সকল ভুক্তভোগীর সমস্যা শুনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করেন।
ওপেন হাউজ ডে’তে সাধারণত তিন ধরনের আবেদন সরাসরি গুরুত্ব সহকারে শোনা হয় ; ভুক্তভোগীর কথা, সমাজের শৃঙ্খলা রক্ষায় সাধারণ জনগণের গঠনমূলক পরামর্শ তথা পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ, অনিয়ম রয়েছে কিনা এবং সেই অনুযায়ী গৃহীত ব্যবস্থা সকলের সামনে পর্যালোচনা করা হয়।
বিএমপি কমিশনার মহোদয় আগত সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনার নিজের প্রয়োজন না থাকলেও সমাজের প্রয়োজনে এই ওপেন হাউজ ডে’তে আপনি নিয়মিত আসবেন, যারা জানে না এর সুফল জানিয়ে তাদেরকেও নিয়ে আসবেন। নিয়মিত তথ্য দিয়ে পাশে থেকে সমাজে অপরাধ দানা বাধার আগেই তা নির্মূল প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে প্রো-অ্যাকটিভ পুলিশিং জোরদারে আমাদের সহায়তা করার মাধ্যমে পাশে থাকবেন যেন বড় ধরনের কোন আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির উদ্ভব বা বড় ধরনের কোনো সংঘর্ষ হবে না।
তিনি আরও বলেন, থানার অফিসার ইনচার্জকে থানা এলাকার একজন সামাজিক নেতা হিসেবে জনগণের নিয়মিত খোঁজ নিতে হবে, কোথায় কি হচ্ছে তা দ্রুততম সময়ে নজরে এনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
লক্ষণীয় যে, ওপেন হাউজ ডে’তে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের নিজেকে অভিযোগ অনিয়ম বেশি হয়ে থাকে, দখলদারকে বিতাড়িত করার পুরনো সংস্কৃতি এখনো রয়ে গেছে। জমির প্রতি ন্যায়সঙ্গত দাবি থাকতে পারে দাবি আদায় করতে গিয়ে আদালতের নির্দেশ ব্যতিত আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির উদ্ভব, হয় এমন কিছু করা যাবে না। আদালতের নির্দেশক্রমে স্থানীয় সুশীল সমাজের সর্বস্তরের জনগণ নিয়ে পুলিশে শান্তিপূর্ণভাবে সামাজিক সমাধান দিতে পারে মাত্র।
বস্তুনিষ্ঠ তথ্যের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট এলাকার জনগণের সম্পৃক্ততা, সহযোগিতা সম্মিলিত উদ্যোগে একটি নিরাপদ সমাজ উপহার দেয়া সম্ভব মর্মে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার উত্তর রুনা লায়লা বলেন, আপনারা অত্যন্ত সৌভাগ্যের অধিকারী যে, পুলিশ কমিশনার স্বয়ং নিজে হাজির হয়ে থাকেন আপনার অভাব অভিযোগ শুনে প্রতিকারদানে।
সবার সদিচ্ছা এবং আন্তরিক সহযোগিতার মাধ্যমে একটি নিরাপদ সমাজ উপহার দিতে চাই।
বিএমপি এয়ারপোর্ট থানার সহকারী পুলিশ কমিশনার মোঃ মাসুদ রানা বলেন,আমরা আপনাদের সেবায় সদা জাগ্রত, কি করে সেবার মান আরও বাড়ানো যায়, বেশি বেশি তথ্য দিয়ে পাশে থাকুন।
পুলিশ পরিদর্শক (সদ্য পদায়িত অফিসার ইনচার্জ এয়ারপোর্ট) কমলেশ হালদার বলেন, কতটুকু সেবা পৌঁছে দিতে পেরেছি তা জানাতে নিয়মিত ওপেন হাউজ ডে’তে আসুন। আপনার নিজের জন্য না হলেও সমাজের উপকারের জন্য সুনির্দিষ্ট পরামর্শ
নিয়ে আসুন। আমি আপনাদের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে প্রস্তুত।
অনুষ্ঠান সভাপতিত্ব করেন, অফিসার্স ইনচার্জ এয়ারপোর্ট থানা বিএমপি মোঃ জাহিদ বিন আলম।ওপেন হাউজ ডে’তে আগত জনগণের বক্তব্যে কর্তব্য পালনে তথা করোনাকালীন ভূমিকায় তিনি একজন মানবিক পুলিশ হিসেবে প্রশংসিত হন।
এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত এয়ারপোর্ট থানা বিএমপি শাহ মোহাম্মদ ফয়সাল, এয়ারপোর্ট থানার অফিসারবৃন্দ, কমিউনিটি পুলিশিং এর সদস্যবৃন্দ সহ ওয়ার্ডের সর্বস্তরের জনগণ ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin