ঠাকুরগাঁওয়ে ৭ মার্চের অনুষ্ঠানে হিন্দি গান-নাচ, অংশ নিল পুলিশও

সিটি নিউজ ডেস্ক: ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল থানা পুলিশের আয়োজনে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন অনুষ্ঠানে হিন্দি গান এবং এর তালে উদ্দাম নাচ পরিবেশনার অভিযোগ উঠেছে। ওই নাচে কয়েকজন পুলিশ সদস্যকেও অংশ নিতে দেখা গেছে।

সেই নাচ-গানের ভিডিও ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ঐতিহাসিক ৭ মার্চের অনুষ্ঠানে এমন অশোভনীয় পরিবেশনার বিষয়ে বিরূপ মন্তব্য করেন অনেকেই।

রোববার (৭ মার্চ) রাণীশংকৈল থানা পুলিশের ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহাম্মদ কামাল হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য মো. ইয়াসিন আলী। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহরিয়ার হোসেন মুন্না। নাচ চলাকালে অতিথিদের কেউ অনুষ্ঠানস্থলে ছিলেন না।

প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ৭ মার্চের ওই অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়। দুপুর ২টায় অনুষ্ঠান শুরুর কথা থাকলেও তা বিকেল পর্যন্ত গড়ায়, এতে বীর মুক্তিযোদ্ধারা ক্ষোভ প্রকাশ করে অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন। তারা চলে যাওয়ার পর বঙ্গবন্ধুর ছবিযুক্ত ব্যানারসম্বলিত মঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। সেখানে এমন অশোভনীয় নাচ-গান পরিবেশনার অভিযোগ ওঠে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বইছে।

ভাইরাল ৩ মিনিট ৮ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা যায়, মঞ্চে বঙ্গবন্ধুর ছবিসম্বলিত ব্যানার। ওই ব্যানারের সামনে হিন্দি ‘লুঙ্গি ড্যান্স’ গানের তালে তালে নাচছেন যুবকরা। তাদের সঙ্গে দুজন পুলিশ সদস্যকেও নাচতে দেখা যায়। এই দুই পুলিশ সদস্যের একজনকে সক্রিয়ভাবে নাচতে দেখা গেছে। মঞ্চের সামনের সারিতে বসা এক পুলিশ কর্মকর্তা তালি দিচ্ছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রাণীশংকৈল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম জাহিদ ইকবাল মোবাইল ফোনে বলেন, ৭ মার্চ উপলক্ষে থানায় আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। অনুষ্ঠানের শেষ দিকে স্থানীয় ছেলেরা মঞ্চে একটু নাচানাচি করেছে।

তবে পুলিশ সদস্যদের নাচের বিষয়টি তিনি এড়িয়ে যান।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin