স্বাস্থ্যের সেই কোটিপতি গাড়িচালকের বিচার শুরু

সিটি নিউজ ডেস্ক: স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কোটিপতি গাড়িচালক আবদুল মালেক ওরফে হাজী আবদুল মালেকের (৬৩) বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনের মামলায় চার্জ (অভিযোগ) গঠনের আদেশ দিয়েছেন আদালত। 

বৃহস্পতিবার শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর এক নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক কেএম ইমরুল কায়েশ এ আদেশ দেন। একইসঙ্গে আগামী ৫, ৬, ৭ ও ৮ এপ্রিল মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেন। চার্জ গঠনের মাধ্যমে এ মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু হলো বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

এদিন আসামিপক্ষে আইনজীবী আবদুল মান্নান অব্যাহতি চেয়ে শুনানি করেন। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর তাপস কুমার পাল চার্জ শুনানি করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আসামির অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে চার্জ গঠনের ওই আদেশ দেন।

এর আগে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি এই আদালত আসামির বিরুদ্ধে দেওয়া চার্জশিট গ্রহণ করেন। তার আগে গত ১১ জানুয়ারি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর এসআই মেহেদী হাসান চৌধুরী আদালতে এ মামলার চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন। 

গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর ভোরে রাজধানীর তুরাগ থেকে মালেককে গ্রেফতার করে র‌্যাব। ওই সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, পাঁচ রাউন্ড গুলি, দেড় লাখ টাকার জালনোট, একটি ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় র‌্যাব-১ এর পুলিশ পরিদর্শক আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে অস্ত্র ও জাল টাকার দুটি মামলা করেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী গাড়িচালক মালেকের শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি। ১৯৮২ সালে সাভার স্বাস্থ্য প্রকল্পে চালক হিসেবে যোগদান করেন। পরে ১৯৮৬ সালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিবহন পুলে চালক হিসেবে চাকরি শুরু করেন। অধিদপ্তরের বিভিন্ন পদে পদোন্নতি ও নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে। একজন গাড়িচালক হয়েও মালেক পাজেরো জিপ ব্যবহার করেন। ঢাকার বিভিন্ন স্থানে তার একাধিক বাড়ি, গাড়ি ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। পুলিশের দাবি, জাল টাকার ব্যবসা ছাড়াও এলাকায় চাঁদাবাজিতে জড়িত মালেক।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin