বরিশালে জাল-জালিয়াতি মামলা হলো বিএনপি নেতা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে

সিটি নিউজ ডেস্ক: বরিশাল মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) জিয়া উদ্দিন সিকদার ও তার স্ত্রী শাহানা জিয়াসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে জাল-জালিয়াতি এবং প্রতারণার অভিযোগে একটি মামলা করা হয়েছে। জমি বিক্রির নামে ২০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে মামলাটি করেন শহরের বাংলাবাজার শাহেবের বাজার এলাকার বাসিন্দা পেশায় আইনজীবী একে এম আরিফুর রহমান খান নামক এক ব্যক্তি। কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশ মামলাটি গ্রহণ করলেও বিষয়টি অনেকটা লুকোচাপা রয়েছে। এছাড়া এই মামলার বাকি তিন আসামী বিএনপি নেতার সহযোগী কাওসার মোল্লা (৪০), শাকিল (৩০) এবং নাসির সিকদার (৪৫)।

বাদী একে এম আরিফুর রহমান খানের অভিযোগ, শহরের ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিল ও বিএনপি নেতা জিয়া উদ্দিন সিকদার রুপাতলী পল্লীবিদ্যুৎ মসজিদ সংলগ্ন ৪৭ শতাংশ জমি নিজের দাবি করে বিক্রির কথা জানান। এই জমি আমি ক্রয়ের বিষয়টি অবহিত করলে তিনি সম্মত হন এবং ২০১৯ সালের তিন জুন ২০ লাখ টাকা নিয়ে রেজিস্ট্রি বায়নাচুক্তি করে বুঝিয়ে দেন। পরবর্তীতে আমি সেখানে মাটি ভরাটসহ প্রায় ৭ লাখ টাকার কাজ করলে জনৈক সুখলাল আশ্চর্যের ওয়ারিশ হিসেবে বেশ কয়েকজন জমিটি দাবি করেন। এবং একটা পর্যায়ে প্রকাশ পায় জমিটি নিয়ে মামলাও চলমান আছে।

বিরোধপূর্ণ ভুমি নিতে আমি আগ্রহী না জানিয়ে চেক মারফত দেওয়া ২০ লাখসহ সর্বমোট ২৬ লাখ টাকা ফেরত চাইলে তিনি দেই, দেব করে ঘুরাতে থাকেন। এরপর দেড় বছর ঘুরানোর পরে একদিন জানান মূল টাকার ২৫ লাখ ফেরত দিবেন, কিন্তু কবে দিবেন তা স্পষ্ট করেনি। তারপরে আরও ৬ মাস কেটে গেলে সাম্প্রতিকালে জিয়া উদ্দিন সিকদারের সাথে বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যালয়ের সম্মুখ দেখা হলে আরিফুর রহমান খান টাকাগুলো ফেরত চান। এসময় বিএনপি নেতা জিয়া প্রতিত্তোরে সাফ হুমকিস্বরুপ জানিয়ে দেন, কোনো একদিন বিএনপি ক্ষমতায় আসলে তিনি মেয়র হবেন এবং তখন অর্থ বা জমি বুঝিয়ে দেবেন।

বাদী জানান, এই ঘটনায় গত ৮ মার্চ কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশে একটি অভিযোগ করলে সেটি তদন্ত করে ১৫ মার্চ এজাহার হিসেবে গ্রহণ করেন ওসি।

অভিযোগ, মামলাটি কোতয়ালি পুলিশ গ্রহণ করলেও বিএনপি ও তার স্ত্রীসহ সহযোগীদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।
সূত্র: বরিশাল টাইসম

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin