প্যান্ট চুরি: ৩২০ টাকা জরিমানা দিলেন রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ নেতা

সিটি নিউজ ডেস্ক: প্যান্ট চুরি করে ৩২০ টাকা জরিমানা দিয়েছেন রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান ওরফে জুয়েল রানা। এসময় তিনি ব্যবসায়ীদের সামনে ক্ষমাও চান। এমন ঘটনা ঘটেছে তানোরের গোল্লাপাড়া বাজারের প্রদিপ সুপার মার্কেটে।

অভিযোগ উঠেছে জুয়েল রানা ওই মার্কেটের গার্মেন্টস ব্যবসায়ী প্রসেনজিৎ দোকান থেকে প্যান্টি চুরি করেন। চুরের একদিন পরে সিসিটিভি ক্যামেরা ফুটেজে ধরা পরে বিষয়টি।

বিষয়টি ছাত্রলীগ নেতা জুয়েল রানাবলেন- ‘আমি প্যান্টটা চুরি করিনি। মজা করেছি। সন্ধ্যায় মজা করে- সকালে ওই প্যান্ট পরে এসে টাকা দিয়ে দিয়েছি। একজন অপরিচত মানুষ আমাকে মার্কেটের পেছনে পানের সাথে ঘুমের ওষুধ খাওয়ায়। এর পর থেকে আমি আর কথা বলতে পারিনি। নেশা নেশা লাগছিলো। বিষয়টি অনেকেই জেনে যাবে তাই, না কথা বলে প্যান্টটা নিয়ে যায়।’

আপনাকে সিসিটিভ ফুটেজে দেখা গেছে আর ১০ টা মানুষের মতই স্বাভাবিক হেঁটে যাচ্ছেন এমন কথা উত্তরে তিনি- বিষয়টি এড়িয়ে যান।

গার্মেন্টস ব্যবসায়ী প্রসেনজিৎ জানান, ‘শনিবার (১০ এপ্রিল) বিকেলে পরে চুরের ঘটনা ঘটেছে। আমি দোকানে ছিলাম না। আর ছোট ভাই দ্বীপ ছিলো। আমি প্যান্টটা দেখতে না পেয়ে দ্বীপকে জিজ্ঞাসা করে। সেও বলতে পারে না। এর পরে দোকানের অন্য সব জায়গায় খুঁজে দেখে সেখানেও না পেয়ে পাশের একটি দোকানে সিটিটিভি ক্যামেরা লাগানো আছে।

সেখানে যায়, এর পরে চুরির ঘটনাটি দেখতে পাই। তখন জুয়েল রানাকে শনাক্ত করি। পরে তাকে ফোন দিলে এসময় জুয়েল রানা আমাকে (প্রসেনজিৎ) জানায়- ভাই আমি বিষয়টি আপনাকে বলবো বলবো মনে করছিলাম। কিন্তু আপনিই ফোন দিলেন। এর পরে জুয়েল রানা মার্কেটে আসে। এসময় গোল্লাপাড়া বাজার বণিক সমিতির সভাপতি সারওয়ার ও সম্পাদক পাপুল সরকারের উপস্থিতিতে ৩২০ টাকা জরিমানা দেয়।’

গোল্লাপাড়া বাজার বণিক সমিতির সভাপতি সারওয়ারের মুঠোফোন কল করা হলে বন্ধ পাওয়া যায়।

এবিষয়ে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেরাজুল ইসলাম মেরাজ জানান- ‘এই প্রথম শুনলাম। আপনি যে নাম বললেন সেটা ঠিক আছে, আর মোবাইল নম্বর এই রকমই। তবে কোন ব্যবসায়ী বা বাজার কমিটি অভিযোগ করলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।’

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin