বরিশালে ছিনতাইয়ে নারী

সিটি নিউজ ডেস্ক: বরিশালে ছিনতাইয়ে নারীর সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগ নিয়ে বিভাগীয় শহরটিতে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে।

সন্তানের সাথে হাতে ব্যাগ ও মোবাইল নিয়ে সড়কের পাশ ধরে হেটে যাচ্ছিলেন এক নারী। হঠাৎ করে একটি মোটরসাইকেলের পেছনের সিটে বসা এক নারী হেটে চলা ওই নারীর হাতের ব্যাগটি টান দিয়ে নিয়ে পালিয়ে যান। মোটরসাইকেলটি চালাচ্ছিলেন এক যুবক।

এরইমধ্যে ভুক্তভোগী নগরীর রুপাতলীর আনিকা ড্রিম হাউসের স্বত্ত্বাধিকারী আনিকা তাহসিন বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি মামলা করেছেন।

আনিকা জানান, রোববার বেলা ১২টার দিকে ওই ঘটনা ঘটে। তিনি নগরের রুপাতলী হাউজিং এর বাসা থেকে বের হয়ে বাংলাবাজার যাচ্ছিলেন। সঙ্গে ছিল নিজের ও বোনের ছেলে।

‘বাসা দিয়ে বের হয়ে রাস্তার পাশ দিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার সময় হঠাৎ করেই মোটরসাইকেলের পেছনে থাকা মেয়েটি আমার হাতের ব্যাগটি টেনে নেয়। সঙ্গে সঙ্গে চালক ছেলেটি মোটরসাইকেলের গতি বাড়িয়ে পালিয়ে যায়’- বলেন ভুক্তভোগী আনিকা।

ব্যাগের মধ্যে তিনটি ব্যাংকের কার্ড, জাতীয় পরিচয়পত্রের কার্ড, নগদ টাকাসহ জরুরি কিছু কাগজপত্র ছিল জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এরপর স্থানীয় এক ছেলের মাধ্যমে জানতে পারি ওই ছেলে ও মেয়েটি এর আগেও আশপাশে মোটরসাইকেল নিয়ে ঘোরাঘুরি করেছে। তারা আমাকে টার্গেট করে ছিনতাই করল কি না তা বুঝতে পারছি না।’

তিনি বলেন, ‘বাইক চালিয়ে ছিনতাই হয়, তবে মেয়েরা যে এতে সম্পৃক্ত সেটি দেখে আমি হতবাক হয়েছি। আর বাইক যাদের আছে তারা অভাবের তাড়নায় এ কাজ করতে পারে না। হয়ত স্বভাবের কারণে নয়ত নেশার কারণে এ কাজ করেছে।’

বরিশাল কোতয়ালী ম‌ডেল থানার প‌রিদর্শক (তদন্ত) মো. আসাদুজ্জামান বলেন, ‘ওই ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী থানায় অ‌ভিযোগ দিয়েছেন। মামলা হয়‌নি। বিষয়‌টি তদন্ত চল‌ছে।’

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin