কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে লাল কাকড়া ও কচ্ছপের অভয়াশ্রম উদ্বোধন

জীববৈচিত্র্য রক্ষায় কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে লাল কাকড়া ও কচ্ছপের অভয়াশ্রম আনুষ্ঠানিক ভাবে শনিবার (৫ মে) বেলা ১২ টায় উদ্বোধন হয়েছে । ওয়ার্ড ফিস এর আওতায় ইকোফিস ২ প্রকল্পের অর্থায়নে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের পূর্ব পাশে চর গঙ্গামতি এলাকায় হাফ কিলোমিটার এলাকা ও পশ্চিম পাশে তিন নদীর মোহনাতে হাফ কিলোমিটার এলাকা রেড জোন করে অভয়াশ্রম বাস্তবায়ন করেছেন কলাপাড়া উপজেলা প্রশাসন, ট্যুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা জোন ও ট্যুর অপারেটরস এসোসিয়েশন অব কুয়াকাটা ( টোয়াক)।

সীবীচ এলাকাতে পর্যাপ্ত পরিমানের লাল কাকড়া বৃদ্ধি সহ কচ্ছপের ডিম পারাকে নিশ্চিত করে পরিবেশের ভারসম্য রক্ষায় এ প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।


উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ধুলাসার ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আঃ জলিল আকন, ট্যুর অপারেটরস এসোসিয়েশন অব কুয়াকাটা (টোয়াক) সভাপতি রুমান ইমতিয়াজ তুষার, কলাপাড়া উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মহসিন রেজা, ইকোফিস ২ পটুয়াখালী জেলা সহকারী গবেষক সাগরিকা স্মৃতি, টোয়াক ভাইস প্রেসিডেন্ট লুৎফুল হাসান রানা, ডিরেক্টর অর্গানাইজ আবুল হোসেন রাজু, ডিরেক্টর পিআর কে এম বাচ্চু প্রমূখ।

টোয়াক সভাপতি রুমান ইমতিয়াজ তুষার জানান, লকডাউন চলার কারনে সীবীচের দুই পাশে অসংখ্য লাল কাকড়ার বিচরণ দেখা যায়। অভয়াশ্রম নির্মান হওয়ায় প্রচুর পরিমানে এর বংশ বৃদ্ধি পাবে, পাশাপাশি পর্যটকদের জন্য এটি প্রকৃতিকে কাছ থেকে দেখার সুযোগ পাবে। ইকোফিস সহকারী গবেষক সাগরিকা স্মৃতি জানান, জীববৈচিত্র্য রক্ষার অংশ হিসেবে আমরা লাল কাকড়া ও কচ্ছপের অভয়াশ্রম নির্মানে উদ্যোগ নিয়েছি।

লাল কাকড়া মাটির গুনগত মান বৃদ্ধি করে। পরিবেশের ভারসম্য রক্ষা করে। এদের প্রতি যত্নবান হওয়া আমাদের প্রত্যেকের দায়ীত্ব।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin