মৃত্যুবার্ষিকীতে চারণকবি মুকুন্দ দাসকে স্মরণ

চারণকবি মুকুন্দ দাসের ৮৭তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ ১৮ মে। দিনটি উপলক্ষে চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, বরিশাল নানা আয়োজনে মুকুন্দ দাসকে স্মরণ করেছে।

সকা‌লে বরিশাল নগরীর নথুল্লাবাদে মুকুন্দ দাস প্রতি‌ষ্ঠিত কা‌লীবা‌ড়ি প্রাঙ্গ‌ণে তার মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আয়োজনের মধ্যে ছিল ক‌বি মুকুন্দ দাসের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

মুকুন্দ দাসের স্মরণে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের প্রধান সংগঠক রিতা ব্যাপারি। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন চারণের সদস্য অদিতি ইসলাম।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সৈয়দ হাতেম আলী কলেজের অর্থনীতি বিভাগের প্রধান আজমল হোসেন, চারুকলা বরিশালের সংগঠক অ্যাডভোকেট সুভাষ চন্দ্র দাস, উদীচী বরিশাল জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক স্নেহাংশু বিশ্বাস, বাসদ বরিশাল জেলা শাখার সদস্যসচিব ডা. মনীষা চক্রবর্তী, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সংগঠক সুধীন দাসসহ আরও অনেকে।

আজমল হোসেন বলেন, মুকুন্দ দাস ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে সাংস্কৃতিক মাত্রা যোগ করেছিলেন। গান-যাত্রাপালার মধ্য দিয়ে বাংলার মানুষকে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন। আজকের দিনেও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর কর্তব্য হচ্ছে বিদ্যমান দুঃশাসন-শোষণ-নিপীড়নের বিরুদ্ধে জনগণকে প্রতিবাদে উদ্বুদ্ধ করা, প্রগতির পথে চালিত করা। বেশির ভাগ সাংস্কৃতিক সংগঠন সেই ধারা থেকে দূরে সরে গিয়ে এক ধরনের পোশাকি সাংস্কৃতিক চর্চার মধ্যেই নিজেদের সীমাবদ্ধ রাখছে।

আজমল হোসেন মুকুন্দ দাসের সংগ্রামী জীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে বর্তমানের সাংস্কৃতিক আন্দোলনকে শক্তিশালী করার দাবি জানান।

আলোচনা সভা শেষে মুকুন্দ দাস রচিত গান ও কবিতা পরিবেশন করেন চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সদস্যরা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin