আটকে পড়া ২ লঞ্চের যাত্রীদের পাশে এমপি পঙ্কজ

সিটি নিউজ ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের কারণে বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের মাসকাটা নদীতে আটকে পড়া দুইটি লঞ্চের ৪শ যাত্রী ও লঞ্চ স্টাফদের পাশে দাঁড়িয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য (এমপি) পঙ্কজ নাথ।

জানা গেছে, ভোলা থেকে এমভি আল-ওয়ালিদ ও হাতিয়া থেকে এমভি তাসরিফ-২ লঞ্চ যাত্রীদের নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা দেয়।

পথিমধ্যে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের কারণে বৈরী নিরাপদ আশ্রয় হিসেবে মেহেন্দিগঞ্জের পাতারহাট লঞ্চঘাট সংলগ্ন মাছকাটা নদীতে যাত্রীসহ নিরাপদে নোঙর করে লঞ্চ দুটি। এরপর যাত্রীরা সেই লঞ্চ দুটিতেই অবস্থান করছিলো। তবে লঞ্চে খাদ্য সংকট দেখা দিলে বিষয়টি স্থানীয় এমপি (বরিশাল-৪) পঙ্কজ নাথ জানতে পারেন। তিনি বুধবার রাত থেকে ওই দুই লঞ্চের ৪শ যাত্রীর খাবারের ব্যবস্থা করছেন। পাশাপাশি তিনি নিজে গিয়ে লঞ্চের যাত্রীদের শারীরিক ও মানসিক অবস্থার খোঁজখবর নিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সকাল লঞ্চ দুটির যাত্রী ও স্টাফদের খোঁজখবর নিতে এমপি পঙ্কজ নাথের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মাহফুজ উল আলম লিটন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান খোরশেদ আলম ভুলু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সুভাষ চন্দ্র সরকার, সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান রিপন, পৌর কাউন্সিলর মনির জমদ্দার প্রমুখ।
এমপি পঙ্কজ নাথ জানান, বুধবার দুপুরের পর তিনি জানতে পারেন তার সংসদীয় এলাকার মাছকাটা নদীতে ঢাকাগামী দুটি লঞ্চ যাত্রীদের নিয়ে আটকা পড়েছে। এরপর খোঁজখবর নিয়ে রাত থেকে এমভি আল-ওয়ালিদ, এমভি তাসরিফ-২ লঞ্চের যাত্রী ও লঞ্চ স্টাফ মিলিয়ে ৪শ জনের খাবার ব্যবস্থা করেন তিনি। এছাড়া পাতারহাট থেকে ঢাকাগামী ইয়াদ লঞ্চের স্টাফদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
তিনি বলেন, রাতের পর বৃহস্পতিবার সকালের নাস্তার ব্যবস্থাও করা হয়েছে, দুপুরেও ব্যবস্থা করা হচ্ছে খাবারের। লঞ্চ না ছাড়া পর্যন্ত আটকেপড়া তিন লঞ্চের ৪ শতাধিক যাত্রী ও স্টাফদের খাবারের ব্যবস্থা করা হবে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এমভি আল-ওয়ালিদ ও এমভি তাসরিফ-২ লঞ্চ দুটি মঙ্গলবার বৈরী আবহাওয়ার প্রভাব শুরু হওয়ার আগেই যাত্রীদের নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা দেয়। তবে, ঝড়ের কবলে পরে বুধবার এসে মাসকাটা নদীতে আশ্রয় নেয়।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin