ভোলায় মারধর করে শ্বশুরবাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়ায় গৃহবধূর আত্মহত্যা

সিটি নিউজ ডেস্ক: ভোলায় শ্বশুরবাড়ির লোকজন মারধর করে তাড়িয়ে দেয়ায় সীমা বেগম (২৫) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার (৩১ মে) বেলা ১১টায় তজুমদ্দিনের শম্ভুপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের শম্বুপুর গ্রামে থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত সীমা একই গ্রামের আব্দুল মান্নানের মেয়ে। পুলিশ জানায়, প্রায় চার বছর আগে সীমা বেগমের সঙ্গে এক প্রবাসীর বিয়ে হয়। তাদের একটি সন্তান রয়েছে। স্বামী প্রবাসে থাকায় সীমার সঙ্গে তার বাবার বাড়ির পার্শ্ববর্তী মো. জামাল হোসেনে ছেলে তুহিনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে সীমার ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়।

এরপর কিছুদিন আগে তুহিনের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। কিন্তু তুহিন সীমাকে তাদের বাড়িতে উঠিয়ে না নেয়ায় তাদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। এ ঘটনার জেরেই সোমবার সকালে সীমা তুহিনের বাড়িতে গেলে তুহিনের পরিবারের সদস্যরা তাকে মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। এতে অভিমান করে তিনি বাবার বাড়িতে ফিরে আত্মহত্যা করেন।

তজুমদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম জিয়াউর হক বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। বিষয়টির তদন্ত চলছে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin