‘স্ত্রীর’ ধাক্কায় কাভার্ডভ্যানের চাপায় নিহত হওয়া ব্যক্তির বাড়ি বরিশাল

সিটি নিউজ ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ‘স্ত্রীর’ ধাক্কায় ইজিবাইক থেকে ছিটকে পড়ে কাভার্ডভ্যানের চাকায় পিষ্ট হয়ে নিহত ‘স্বামীর’ পরিচয় পেয়েছে পুলিশ। নিহতের নাম ইয়াসিন আরাফাত দুলাল (২৫)। তিনি বরিশাল জেলার মেহেন্দিগঞ্জ থানার শ্রীপুর বাহেরচর গ্রামের হাফেজ মো. রারির ছেলে।

সোমবার দুপুরে ফতুল্লা মডেল থানায় দুলালের লাশ শনাক্ত করে ফতুল্লা এয়ারটেল ডিস্ট্রিবিউশন ম্যানেজার কাউসার আহমেদ যুগান্তরকে জানান, ২০১৫ সাল থেকে ফতুল্লায় এয়ারটেলের সেলসম্যানের চাকরি করেন দুলাল। গত বছর সেপ্টেম্বরে দুলাল করোনা আক্রান্ত হন। তখন তাদের গ্রামের বাড়ির পরিচিত স্বামী পরিত্যক্তা রাজধানীর মুগদা হাসপাতালের নার্স আয়েশা এসে তার মুগদার বাড়িতে দুলালকে নিয়ে যান।

সেখানে চিকিৎসা করে দুলালকে সুস্থ করে তুলেন আয়েশা। এতে তাদের মধ্যে প্রেম-ভালোবাসার সম্পর্কে ২০ লাখ টাকা দেনমোহর দিয়ে আয়েশাকে বিয়ে করেন দুলাল। আয়েশার আগের সংসারে দুটি সন্তান রয়েছে।

তিনি আরও জানান, বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে কলহ চলে আসছে। কয়েক মাস পূর্বে স্থানীয়ভাবে দেনদরবার করে আয়েশাকে তালাক দেন দুলাল। এরপর এপ্রিল মাসে ছুটিতে গ্রামের বাড়ি গিয়ে আরেকটি বিয়ে করেন দুলাল। গত দুই দিন আগে গ্রামের বাড়ি থেকে ফতুল্লা মডেল থানা সংলগ্ন এয়ারটেল অফিসের কর্মস্থলে আসেন দুলাল।

রোববার থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। তাকে ফোনেও পাওয়া যাচ্ছিল না। তাদের বহনকৃত ইজিবাইক চালকের বক্তব্য মতে ধারণা করা হচ্ছে আয়েশা তাকে ডেকে নিয়ে রোববার রাত সাড়ে ১০টায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে ফতুল্লার ভুইগড় কড়ইতলা এলাকায় ইজিবাইক থেকে ধাক্কা দিয়ে গাড়ির নিচে ফেলে দিয়ে হত্যা করেছেন।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, নিহতের পকেটে একটি ব্যাংকের চেক ছিল। সেই চেকের সূত্র ধরে দুলালের পরিচয় পেয়েছি। দুলালের সাবেক স্ত্রীর বিষয়েও খোঁজখবর নেয়ার চেষ্টা করছি। আশা করি দ্রুতই রহস্য উদঘাটন হবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin