উদীয়মান প্রমিজিং দক্ষ পুলিশ অফিসার চায় বাংলাদেশের মানুষ-বিএমপি কমিশনার

সিটি নিউজ ডেস্ক: বিএমপির বদলি ও পদোন্নতিজনিত বিদায় সংবর্ধনা গতকাল বুধবার নগরীর চাঁদমারি সংলগ্ন পুলিশ অফিসার্স মেস’র অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, মেট্রোপলিটন পুলিশের পুলিশ কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম-বার। ট্রাফিকের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার রাসেল এর সঞ্চালনায়, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ফোর্স (সদ্য পদোন্নতিপ্রাপ্ত এসপি) পুলিশ সুপার বরিশাল রেঞ্জ অফিস, বিএমপি’র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ফোর্স মোঃ আব্বাসউদ্দীন ভোলা সদর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবং বিএমপি পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার (স্টাফ অফিসার এন্ড স্টেট প্রকৌশলী) শাহেদ আহমেদ চৌধুরী (এএসপি) বাউফল সার্কেল হিসেবে বদলী জনিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।

বদলীজনিত বিদায়ে, বিএমপি কমিশনার হাত থেকে সম্মাননা ও শুভেচ্ছা স্মারক এবং সহকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত হন বিদায়ী অতিথিবৃন্দ। পুলিশ কমিশনার সহ সকল ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ও সহকর্মীদের বক্তব্যে কর্মময় জীবনে বিদায়ী অতিথি একজন দক্ষ, গুণী ও মানবিক গুণাবলী সম্পন্ন পেশাদার কর্মকর্তা হিসেবে আলোচিত হন এবং বিদায়ী অতিথিদের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন।

এসময় পুলিশ কমিশনার বলেন, ভালো অফিসার হিসেবে বিদায়ী কর্মকর্তাবৃন্দ একেকজন ভালো ও সুযোগ্য কর্মকর্তা হিসেবে বিবেচিত বলেই যথাযোগ্য বদলি হয়েছে। মেট্রোতে নবীন কর্মকর্তা হিসেবে কাজী সোয়াইব আহমেদ এর উপর অর্পিত কাজগুলো অত্যন্ত আন্তরিক অংশগ্রহণে একজন ডেডিকেটেড পুলিশ অফিসার হিসেবে মনে হয়েছে।

অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ফোর্স আব্বাসউদ্দিন দীর্ঘদিন এই পুলিশ বাহিনীতে কর্মরত। জেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা, ব্যক্তি জীবনে তিনি অনেক সুখী মানুষ, মা-বাবার দোয়ায় সৃষ্টিকর্তার ইচ্ছায় তাঁর প্রাপ্তি অনেক । তাঁর অভিজ্ঞতার ঝুলি অনেক বড়।অভিজ্ঞতার নির্যাস দিয়ে শেষ পর্যন্ত জনকল্যাণে নিজেকে বিলিয়ে দিবেন।

বিএমপি’র সহকারী পুলিশ কমিশনার বিএমপি স্টাফ অফিসার এন্ড কোতোয়ালি প্রকৌশলী শাহেদ আহমেদ চৌধুরীকে একজন কর্মঠ ও টেকনিক্যাল গুণসম্পন্ন অফিসার হিসেবে খুব কাছ থেকে দেখেছি। তার টেকনিক্যাল জ্ঞান এর অনেক ব্যবহার রয়েছে আমাদের বিএমপি’র উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে । ক্লুলেস মামলা তদন্তেও প্রযুক্তির ব্যবহারে রয়েছে ব্যাপক সফলতা।

আমি, বদলী ও পদোন্নতিজনিত বিদায়ী অতিথিদের উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করছি। শুধু চাকুরির জন্য চাকুরি নয় মানুষের সুখ দুঃখের সাথী হিসেবে নির্ভেজাল ও নিরপেক্ষভাবে জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য, আন্ডারকমান্ডকে সঠিকভাবে গাইড করা, মনিটরিং করা সহ যে কাজগুলো রয়েছে। সেগুলো তাঁরা আরও সঠিক ভাবে পালন করবে মর্মে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এ-সময় উপস্থিত ছিলেন, বিএমপি পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার প্রলয় চিসিম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ক্রাইম অপারেশন এন্ড প্রসিকিউশন এনামুল হক, উপ-পুলিশ কমিশনার বিএমপি সদরদপ্তর মোঃ নজরুল হোসেন, উপ-পুলিশ কমিশনার সাপ্লাই এন্ড লজিস্টিকস মোঃ জুলফিকার আলি হায়দার, উপ-পুলিশ কমিশনার দক্ষিণ মোঃ মোকতার হোসেন পিপিএম সেবা, উপ-পুলিশ কমিশনার নগর বিশেষ শাখার মোঃ এসএম তানভীর আরাফাত বিপিএমবার , উপ-পুলিশ কমিশনার ক্রাইম অপারেশন এন্ড প্রসিকিউশন খান মুহাম্মদ আবু নাসের, উপ-পুলিশ কমিশনার ডিবি এন্ড উত্তর মোঃ মনজুর রহমান পিপিএম বার সহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin