ভোলায় সেপটিক ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসে ২ জনের মৃত্যু

সিটি নিউজ ডেস্ক: ভোলায় নির্মাণাধীন সেপটিক ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন আরও দুজন। শনিবার সকাল পৌনে ৯টার সদর উপজেলার পূর্ব ইলিশা ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের পণ্ডিতেরহাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- একই এলাকার তজু ব্যাপারির ছেলে আব্দুল মালেক (৫০) ও কালু মিয়ার ছেলে জসিম উদ্দিন (৩৫)। আহতরা হলেন- মো. শাহাবুদ্দিন, মো. কবির হোসেন। তারা ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা মো. আলাউদ্দিন জানান, সকালে আব্দুল মালেক বাড়ির নির্মাণাধীন সেপটিক ট্যাংকের শৌচাগারে কাজ করতে আসেন জসিম উদ্দিন। সকাল ৯টার দিকে তিনি সেপটিক ট্যাংকের ভিতরে প্রবেশ করেন। ওই সময় তার সঙ্গে আব্দুল মালেকও সেপটিক ট্যাংকে নামেন। এক পর্যায়ে সেপটিক ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসে তারা নিস্তেজ হয়ে পড়েন। তাদের বাঁচাতে শাহাবুদ্দিন ও কবিরও সেপটিক ট্যাংকের ভেতরে ঢুকলে তারাও গ্যাস ক্রিয়ায় আক্রান্ত হন। পরে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাদের উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ভোলা সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. মো. আমানুল্লাহ্ জানান, সকালে চারজনকে হাসপাতালে আনা হয়। এদের মধ্যে সেপটিক ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসে আব্দুল মালেক ও মো. জসিম উদ্দিনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরও দুজন।

ইলিশা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো. আনিসুল রহমান জানান, খবর পেয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা স্থানীয়দের সহযোগিতায় ট্যাংকের ভেতর থেকে চারজনকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এদের মধ্যে দুজন মারা গেছেন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin