গরীবের ডাক্তার খ্যাত ‘আনোয়ার হোসেন’র ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশালের করোনা যোদ্ধা, বিশিষ্ট চিকিৎসক, নগরীর রাহাত আনোয়ার হাসপাতালের চেয়ারম্যান, অর্থোপেডিক সার্জন ডা. আনোয়ার হোসেনের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।গতবছর এই দিনে দিবাগত রাত পৌনে ৩টায় রাজধানী ঢাকার বাড্ডা এলাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি। এ উপলক্ষে আজ বুধবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৬টা পর্যন্ত পরিচালিত হবে – ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প। নগরীর বান্দ রোডস্থ রাহাত আনোয়ার হাসপাতালে এই ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগন রোগীদের বিনামূল্যে পরামর্শ ও চিকিৎসা সেবা প্রদান এবং প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবেন। এছাড়া পারিবারিক উদ্যোগে দোআ ও মিলাদের আয়োজন করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে মরহুমের একমাত্র ছেলে সন্তান ডা.রাহাত আনোয়ার। তিনি জানান, আজ বুধবার নগরীর চাঁদমারি মাদ্রাসায় দোআ ও মোনাজাতের আয়োজন রাখা হয়েছে। এছাড়া বৃহস্পতি ও শুক্রবার ঝালকাঠির নাকতা গ্রামে মরহুমের প্রতিষ্ঠিত মসজিদ ও এতিমখানায় কোরআন শরিফ খতম, দোআ ও মিলাদের আয়োজন রাখা হয়েছে। চিকিৎসাসেবার পাশাপাশি সমাজসেবক এবং শিক্ষাণুরাগী হিসেবেও ব্যাপক পরিচিত ছিল ডা. আনোয়ার। রাজনৈতিকভাবে তিনি ছিলেন ঝালকাঠি জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি। এ ছাড়া বরিশাল থেকে প্রকাশিত বরিশালের আজকাল নামে একটি দৈনিক পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক ছিলেন ডা. আনোয়ার। দেশে করোনা সংক্রমণ দেখা দেয়ার পরও নিজের মালিকানাধীন রাহাত আনোয়ার হাসপাতাল চালু রেখে চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছিলেন ডা. আনোয়ার। সেসময় উপসর্গ গোপন করে তার হাসপাতালে চিকিৎসা নেয় কিছু করোনা রোগী। একপর্যায়ে হাসপাতালের একাধিক কর্মচারীর শরীরে শনাক্ত হয় করোনা। এরপর করোনার উপসর্গ নিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন ডা. আনোয়ার। সেসময়ে প্রথমে তাকে নেয়া হয় বরিশাল শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় হাসপাতালে। সেখানে সিটি স্ক্যানসহ অন্যান্য পরীক্ষা-নিরীক্ষায় তার করোনা সংক্রমণ বিষয়ে মোটামুটি নিশ্চিত হন চিকিৎসকরা। পরে গুরুতর অবস্থায় হেলিকপ্টারযোগে তাকে বরিশাল থেকে ঢাকায় নেয়া হয়। ঢাকায় বেশ কয়েকটি হাসপাতালে আইসিইউ সুবিধা খালি না পাওয়ার পর তাকে বাড্ডার বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin