মুলাদিতে অভিযোগ দিয়ে উন্নয়ন কাজ বন্ধ করার পাঁয়তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক:: মুলাদি উপজেলার ৫নং চরকালেখা ইউনিয়নে মিথ্যা অভিযোগ করে সরকারি বরাদ্ধকৃত উন্নয়ন কাজ বন্ধের পায়তারা চালাচ্ছে একটি স্বার্থান্বেষী মহল। গত ৮ই জুন কিছু অনলাইন নিউজ পোটালে ” মুলাদিতে কাঁবিখা’র কাজ করা হচ্ছে ভেকু মেশিন দিয়ে জোড় পূর্বক রাস্তা নির্মাণ,নষ্ট হচ্ছে ফসলিজমি ” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয় যা উদ্দেশ্য প্রনোদিত। মুলত কিছু লোক সাংবাদিকদের ভুল তথ্য দিয়ে উন্নয়ন কাজ বন্ধ করার প্রচেষ্টা করে চলছে। সরজমিনে অনুসন্ধানে গিয়ে দেখা যায় ওখানকার ১৩জন জমি দাতাসহ এলাকাবাসী নিয়ে এগিয়ে এসেছেন যাতে করে উন্নয়ন কাজ চলমান অব্যাহত থাকে। এ বিষয়ে মুলাদি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুর মো: হোসাইন এর কাছে এক লিখিত ভাবে অভিযোগ দায়ের করে তাদের সাথে অনেক আলাপ আলোচনার মাধ্যমে এ প্রকল্প হাতে নিয়েছেন বলে দাবি প্রকল্প পরিচালকের। কতিপয় লোকেরা যে অভিযোগ জানিয়েছেন তা ভিত্তিহীন। এ প্রকল্পের মাধ্যমে কারো ক্ষতির কোন সম্ভাবনা নেই। নতুন রাস্তা নির্মানের ফলে জনগনের যাতায়েত,বনায়ন,কল-কারখানা,ব্যাবসা প্রতিস্ঠান, গৃহনির্মান সহ আধুনিক চাষাবাদের অনেক সুযোগ সুবিধাসহ ব্যাপক উন্নয়ন হবে বলে দাবি স্থনীয়দের। অভিযোগের ব্যাপারে ৫নং চরকালেখা ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মহসিন উদ্দিন খানঁ প্রতিবেদককে বলেন কাজ শুরু করার আগে তাদের সবার সাথে কথা বলে রাস্তার সিমানা নির্ধারন করা হয়েছে এখন আবার কিসের ভিত্তিতে অভিযোগ দিয়েছে তা আমার বোধগম্য নয়। অভিযোগের ব্যাপারে মুলাদি থানার এসআই ইউসুফ জানায় আমি ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম জমির মালিক কালাচানঁ ঘরামীর ছেলেরা নারায়ন ঘরামী, নয়ন ঘারমী পরিমল ঘরামী,খিটিস ঘারামী তারা সবাই মিলে ওই রাস্তার করায় বাধা দিয়েছে। তাদের অভিযোগ যে তাদের জমির উপর থেকে রাস্তা নিলে ব্যাপক ফসলি জমি নষ্ট হবে। তাই তারা ইউএনও সাহেবের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলো। এখন তারা তাদের জমি দিয়ে রাস্তা নির্মানে কোনো সমস্যা নেই বলে আমাকে জানিয়েছেন। আপাতত রাস্তা নির্মান কাজ চলতে কোনো বাধা নেই।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin