শেখ হাসিনা দেশের মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সুবিধা দিচ্ছেন : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

সিটি নিউজ ডেস্ক:মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেন, শেখ হাসিনার সরকারের সময় এদেশের বীর মুক্তিযোদ্ধারা সর্বোচ্চ সুবিধা পেয়ে থাকেন। সরকার বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান হিসাবে তাদের বসবাসের জন্য বীর নিবাস নামের উন্নত ধরনের পাকা ভবন প্রদান, তাদের যাতায়াতে জন্য সরকারী পরিবহণে ভাড়া মওকুফসহ তাদের ২০ হাজার টাকা করে সম্মানী ভাতা প্রদান করছেন। পৃথিবীর হতিহাসে এমনভাবে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানীত করার নজির নাই। বুধবার (০৯ জুন) জেলার নাজিরপুরে মুক্তিযোদ্ধা যাদুঘরের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে সাহায্য প্রদানসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রদান অতিথি হিসাবে বক্তব্যকালে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশের মুক্তিযোদ্ধারা স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েন। পাক হানাদারদের দোসর জামায়াতের নেতৃত্বে দেশের স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিরা দেশে হত্যাকাণ্ডসহ ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছিলো। কিন্তু জিয়াউর রহমানসহ খালেদা জিয়া শাসন আমলে  সেই জামায়াতসহ স্বাধীনতা বিরোধী শক্তির দোসর আলী হাসান মোজাহিদের গাড়িতের জাতীয় পতাকা দিয়ে বিএনপি সরকার দেশের মুক্তিযোদ্ধা ও জাতীয় পতাকাকে অপমানীত করেছে । 

ওই দিন দুপুরে উপজেলার স্বাধীনতা মঞ্চে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ওবায়দুর রহমানের সভাপতিত্বে  ও যুবলীগ নেতা এসএম রোকনুজ্জামানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত ওই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, মৎস্য অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগীয় উপ-পরিচালক মো. আনিসুর রহমান তালুকদার, প্রকল্প পরিচালক মো. হাবিবুর রহমান, উপজেলা চেয়ারম্যান মাস্টার অমূল্য রঞ্জন হালদার, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ আব্দুল লতিফ প্রমুখ।

এ সময় উপজেলা  প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগে উপজেলার ১৩ অসহায় পরিবারকে প্রত্যেককে ২ বান্ডিল ঢেউটিন ও  ৬ হাজার টাকা, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ৫ পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর সাহায্য তহফিলের ৫টি নতুন ঘর, ১৯ শিক্ষার্থীকে প্রত্যেককে নগদ ৬ হাজার টাকা, ৫৫ জনকে ১ লাখ টাকার শিক্ষা উপকরণ, ২০ শিক্ষার্থীকে নতুন বাইসাইকেল প্রদান করেন। এ ছাড়া উপজেলার ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্যচাষ প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণের জন্য ৩৮ জন  মৎস্য প্রদর্শী চাষীদের মাছের পোনা, খাবার সহ মৎস্য চাষের বিভিন্ন উপকরণ প্রদান করেন।

এর আগে  মন্ত্রী উপজেলা পরিষদের সামনে মুক্তিযোদ্ধা যাদুঘরের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেন। এ ছাড়া একই দিন সকালে মন্ত্রী উপজেলার শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন। এ সময় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন  কর্মকর্তার কার্যালয়ের উদ্যোগে খামারীদের মাঝে গো খাদ্য বিতরণ করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগীয় কর্মকর্তা দীপক রঞ্জন রায়, পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক আবু আলী মোহাম্মাদ সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার মো. হায়াতুল ইসলাম খান, প্রাণিসম্পদের জেলা কর্মকর্তা আমজাদ হোসেন ভুঞা, উপজেলা আ.লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মাস্টার মনিরুজ্জামান আতিয়ার, জেলা পরিষদ সদস্য মো. সুলতান মাহমুদ খান প্রমুখ।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin