স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর নৌকার সমর্থকদের হামলার অভিযোগ

সিটি নিউজ ডেস্ক ‍‌॥ বরিশালের মুলাদী উপজেলার ৪ নম্বর গাছুয়া ইউনিয়নে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলা চালিয়েছে আওয়ামী লীগের সমর্থকরা।

বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) উপজেলার মৃধারহাট সড়কের ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স অফিসের সামনে এই ঘটনা ঘটে।

স্বতন্ত্র চেয়রম্যান প্রার্থী মোকসেদ আলম মীর বলেন, দুপুরের দিকে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে মৃধারহাট সড়কের ফায়ার সার্ভিস অফিসের সামনে গেলে চরপৈক্ষা গ্রামের করিম বেপারীর ছেলে বশির আহম্মেদের নেতৃত্বে ৩/৪টি মোটরসাইকেলে করে সন্ত্রাসীরা এসে আমার প্রাইভেটকারে হামলা চালায়। তারা হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গাড়ির গ্লাস ভেঙে ফেলে। অবস্থা বেগতিক দেখে দ্রুত গাড়ি চালিয়ে সরাসরি থানায় যাই এবং ওসিকে সব কিছু দেখাই।

তিনি বলেন, হমলাকারী বশির বেপারী নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জসিম বেপারীর আপন ছোট ভাই। মূলত জসিমের নির্দেশে এই হামলা চালানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে নৌকার প্রার্থী জসিম উদ্দীন বলেন, আমি আজ প্রচারণার জন্য ঘর থেকেই বের হইনি। তবে আমি শুনেছি স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মোকসেদ আলম মীরের গাড়ি ভাংচুর করা হয়েছে। আমি জেনেছি, লাঙল প্রতীকের প্রার্থী মালেক সিকদার বহিরাগত লোক এনে প্রচারণা চালাচ্ছিলেন। সেই বহিরাগতরা মোকসেদ মীরের গাড়িতে হামলা চালিয়েছে।

এদিকে চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল মালেক সিকদার জানান, হামলা চালিয়ে এখন দোষ আমার ওপর চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমি আজ মুলাদীর বাইরে ছিলাম। ফলে হামলার সঙ্গে আমার কোনো সম্পৃক্ততা নেই। তবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এর আগে আমাকে মারধর করেছে। আমার বাড়িতে হামলা করেছে। সেই হামলার ঘটনায় থানায়ও অভিযোগ দেওয়া আছে। মূলত নির্বাচন চলে আসায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করে ভোট দখলে নিতে চাইছেন তারা।

মুলাদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাকসুদুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, এখনো লিখিত কোনো অভিযোগ পাইনি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবো। তবে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মোকসেদ আলম মীর থানায় এসেছিলেন। তিনি মৌখিকভাবে গাড়িতে হামলার অভিযোগ করেছেন। আমরা প্রাথমিকভাবে অভিযোগ খতিয়ে দেখছি।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin