মাস্কবিহীন ব্যাক্তি সমাজের জন্য ভয়ঙ্কর– বিএমপি কমিশনার

সিটি নিউজ ডেস্ক ‍॥ মাস্ক পরা অভ্যেস, করোনা মুক্ত বাংলাদেশ ” এই শ্লোগানে বরিশালে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সচেতনতামূলক র‌্যালী ও প্রচার অভিযান করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে কোতয়ালী মডেল থানার আয়োজনে এই কর্মসূচী করা হয়। বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার শাহাবুদ্দিন খানের নেতৃত্বে নগরীর জিলা স্কুল মোড় থেকে একটি র‌্যালী বের ও মোটরযান মহড়া বের করা হয়। র‌্যালিটি জেলখানা মোড়, নতুন বাজার, বটতলা ও বাংলা বাজার হয়ে শেষ হয়।র‌্যালীর শুরুতে পুলিশ কমিশনার শাহাবুদ্দিন খান নগরবাসীর উদ্দেশ্য বলেন, আমাদের জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বেশ কিছু দিন ধরে যে আতংক এবং আশংকা করেছিলেন দক্ষিণাঞ্চল ও বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় করোনা সংক্রমণের যে হার আমরা দেখছি এবং প্রতিদিন ই মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে তা অত্যন্ত উদ্বেগ ও উৎকন্ঠার বিষয়, যা আমরা পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে দেখেছিলাম যে করোনার এবারের ঢেউ সেখানে কিভাবে আছড়ে পরেছিল,সেখানে জনমানুষের জীবন কীভাবে বিপন্ন হয়েছিল। সেই একই ধরনের লক্ষণ আমরাও দেখতে পাচ্ছি এবং এই প্রেক্ষিতে জনসাধারণের সচেতনতার মধ্যে দিয়ে আমরা যদি স্বাস্থ্যবিধি অক্ষরে অক্ষরে পালন করতে না পারি, সরকার যে বিধি নিষেধ গুলো দিয়েছেন সেগুলো যদি মেনে না চলতে পারি,মাস্ক সঠিক নিয়মে না পড়ি এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলি, তাহলে একটি ভয়াবহ পরিস্থিতির কথা জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও অন্যান্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন।আমরা জানি, বরিশালের মানুষ অত্যন্ত সচেতন, সরকারের যেকোনো উদ্যোগ নিলে, বিধিনিষেধ দিলে তাঁরা সেগুলো মেনে চলেন। বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস এর ভয়াল থাবা থেকে নিজেদেরকে সুরক্ষিত রাখতে যথাযথ ভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কোন বিকল্প নেই। সঠিকভাবে মাস্ক পরিধান করা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও হ্যান্ড স্যানিটাইজড করাসহ লকডাউন বাস্তবায়নে জণগনের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে সবাইকে অক্ষরে অক্ষরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বাধ্য করতে হবে।তিনি আরও বলেন, আজকে এই র‌্যালীর মাধ্যমে আমরা বলতে চাই বরিশালের জনসাধারণ অতি জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘরের বাইরে আসবেন না। লকডাউনের অর্থ হলো ঘরে থাকা, বাইরে বের না হওয়া, স্বাস্থ্যগত জরুরী কেনাকাটার জরুরী সেগুলো ছাড়া কেউ বাইরে আসবেন না। পাড়া মহল্লায় যারা পরিবারের দায়িত্বে আছেন, যে যার অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে যেন আমাদের কোন সন্তানেরা অহেতুক অকারণে ঘরের বাইরে বের হয়ে নিজের পাশাপাশি অন্যদের ঝুঁকিতে না ফেলে। ঘরের বাইরে আসলে মাস্ক পড়া অবধারিত। মাস্ক পড়া ছাড়া হাঁটে বাজারে কাউকে দেখতে চাই না। একজন মাস্ক পড়া মানুষ তিনি নিজেকে যেমন করে সুরক্ষিত করেন, সমাজ এবং আশেপাশের সকলকে সুরক্ষিত রাখেন। যিনি মাস্ক পড়েন না তিনি নিজেকে অরক্ষিত রাখেন এবং সমাজের জন্য ভয়ঙ্কর একজন ব্যক্তি। তাই সকলকে সঠিক নিয়মে মাস্ক পড়ে বাইরে আসার জন্য আহ্বান করছি।এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (বিএমপি সদর-দপ্তর) প্রলয় চিসিম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (বিএমপি ক্রাইম অপারেশন এন্ড প্রসিকিউশন) এনামুল হক, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর-দপ্তর) মোঃ নজরুল হোসেন, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার, উপ-পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা এন্ড উত্তর) মোঃ মনজুর রহমান পিপিএম বার,অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার রেজাউল করিম, রুনা লায়লা , মোঃ ফজলুল করিম, শেখ মোহাম্মদ সেলিম, মোঃ রাসেল সহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin