অপচিকিৎসায় মারাই গেলো ভুল গ্রুপের রক্ত দেয়া রোগীর

সিটি নিউজ ডেস্ক ॥ বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ  (শেবাচিম) হাসপাতালের ব্লাড ব্যাংক, কর্তব্যরত নার্স ও চিকিৎসকের দায়িত্বহীনতায় অন্য গ্রুপের রক্ত দেয়া রোগীর মৃত্যু হয়েছে। গত ১০ দিন ধরে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে গতকাল শুক্রবার রাতে শেবাচিম হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রোগী কৃষক মো. লোকমান হোসেনের করুন মৃত্যু হয়। সে কাঠালিয়া উপজেলার আওরাবুনিয়া গ্রামের মুনছুর খা’র ছেলে। ঘটনা পরপরই শেবাচিম হাসপাতাল থেকে রোগীর সমস্ত কাগজপত্র গায়েব হয়ে যায়। রোগীর ব্যবস্থাপত্রসহ অন্যান্য কাগজপত্র অজ্ঞাত কারণে রোগীর স্বজনদের না দিয়েই তরিঘড়ি করে তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
রোগীর কন্যা রিয়া মনি জানান, গত ২৩ জুন সকালে তার বাবা অসুস্থ হয়ে পড়ে। ওই রাতে তাকে শেবাচিম হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষা-নীরিক্ষায় বাবার শরীরে রক্ত শূন্যতা ধরা পড়ে। তাই তার রক্তের গ্রুপ অনুযায়ী ‘এ’ পজেটিভ রক্ত দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগ থেকে ‘এ’ পজেটিভ রক্তের পরিবর্তে ‘ও’ পজিটিভ রক্ত দেয়া হয়। ওয়ার্ডের দায়িত্বরত চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী ২৪ জুন দুপুর আড়াইটার দিকে বাবার শরীরে ‘এ’ পজেটিভ রক্তের পরিবর্তে ‘ও’ পজিটিভ রক্ত পুশ করা হয়। এতে বাবা গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। তখন তাকে হাসপাতালের ইনসেনটিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিউ) পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কোন পরিবর্তন না হলেও দুইদিন পূর্বে মেডিসিন ওয়ার্ড-১ পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে রক্ত বমি করে সে। তার অবস্থা আরো অবনতি হয়। সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকরা তাকে ঢাকা নেয়ার পরামর্শ দেয়। ভুল গ্রুপের রক্ত দেয়ায় রোগীর লিভার বিকল হয়ে পড়েছে। শুক্রবার রাত সাড়ে আটটার দিকে চিকিৎসক রোগীকে মৃত ঘোষনা করেন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin