সরকারি নির্দেশ যেকোন মূল্যে বাস্তবায়ন করবো, র‌্যাব-৮ অধিনায় জামিল হাসান

সিটি নিউজ ডেস্ক: কভিট-১৯, করোনা সংক্রামণ রোধে চলমান লকডাউনের ৫ম দিনে বরিশালের রাস্তায় মানুষজনের চলাচল বেড়েছে। বৃদ্ধি পেয়েছে যানবাহন চলাচলও। লকডাউন কার্যকর করতে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‌্যাব’র চলমান অভিযানে নগরীর নথুল্লাবাদ কেন্দ্রীয় বাসটার্মনাল এলাকায় সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন বরিশাল র‌্যাব-৮ এর অধিনায় (অতিরিক্ত ডিআইজি) জামিল হাসান। আজ (৫জুলাই) সোমবার সকাল ১১ টায় এই ব্রিফিং কালে র‌্যাবের কার্যকর পদক্ষেপসহ লকডাউনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। এসময় তিনি বলেন, সরকারি নির্দেশ যেকোন মূল্যে বাস্তবায়ন করবো। এবং এটা জাতির মঙ্গলের জন্য। গতবারের চেয়ে এবার সংক্রমনের হাড় বৃদ্ধি পেয়েছে। এভাবে যদি চলতে থাকে তাহলে মারক্তক আকার ধারন করতে পারে। এটাকে ঠেকানোর জন্য লকডাউন কার্যকর করায় যেকোন কঠোর ব্যস্থায় আমরা যাবো এবং যেতে বাধ্য হবো।

আমরা ওই মনোভাব নিয়েই মাঠে নেমেছি। সকল মানুষ ঘরে থাকবে। কেবল মাত্র সরকারি নির্দেশনায় যারা বের হতে পারবে তারাই বের হবে। অন্য কেহ নয়। মাঠে পুলিশ র‌্যাব সেনাবাহিনী ম্যাজিস্ট্রেট রয়েছে। সাধারন মানুষ যদি এদের কথাও না শোনে এক পর্যায়ে তাদেরকে শাস্তি মূলক ব্যবস্থা নিতেও আমরা বাধ্য হবো। জরিমানা জেল হতে পারে। উপজেলা পর্যায়ে বড় বড় হাট বাজারগুলোতে আমরা টহল ব্যবস্থা জোরদার করে লকডাউন মানাতে আইনী শাসন প্রতিষ্ঠা করবো।

সেবার জন্যই আমরা র‌্যাবের টহল ব্যবস্থা বরিশাল সিটিতে বৃদ্ধি করেছি। শহরের পাশাপাশি র‌্যাব আজ থেকে নগরীর প্রতিটি অলিতে গলিতে টহল ব্যবস্থা জোরদার করবে। এশারনে আজ নগরীর গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে মোড়ে র‌্যাবের পক্ষ থেকে চেকপেস্ট বসানো হয়েছে। সাধারন মানুষদের ধরে ধরে বাহিরে বের হবার কারন জানতে চেয়ে সঠিক উত্তর না পাওয়ায় মোবাইল কোর্টে হস্তান্তর করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রতিটি যানবাহন চেক করার পাশাপাশি সঠিক কাগজপত্রও যাচাই বাচাই করা হচ্ছে।

পাশাপাশি খুবই অসহায় অবস্থা রয়েছে তারা যদি অপারেশ কন্ট্রোল রুমে ফোন করলে আমরা তাদের খাবারের ব্যবস্থা করবো। তার পরেও সবাই ঘরে থাকবেন। সরকারি নির্দেশনা লকডাউন মেনে চলার আহ্ববান জানাচ্ছি। এসময় উপস্থিত ছিলেন র‌্যাব-৮ এর উপ-অধিনায়ক মেজর মিজানুর রহমান, স্পেশাল কোম্পানী কমান্ডার মেজর জাহাঙ্গীর আলমসহ র‌্যাবের অনান্য কর্মকর্তারা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin