স্বরূপকাঠির ১০ ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত

স্বরূপকাঠি প্রতিনিধি:: পিরোজপুর জেলার স্বরূপকাঠি উপজেলাধীন প্রথম ধাপে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিত ১০ টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্যদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ (১৪জুলাই) বুধবার সকালে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে নব-নির্বাচিত ১০জন চেয়ারম্যানকে শপথ বাক্য পাঠ করান পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন। পরে ৯০ জন সাধারণ সদস্য ও ৩০ জন সংরক্ষিত মহিলা সদস্যদের শপথ পড়ান উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মোশারেফ হোসেন।

উপজেলা প্রশাসন কতৃক আয়োজিত এই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন নব-নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সরকারি বিধি বিধান মেনে দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির উর্দ্ধে উঠে সততা ও নিষ্ঠার সাথে জনকল্যানে কাজ করার নির্দেশনা দেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মোশারেফ হোসেনের সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. জাহিদ হোসেনের সঞ্চালনায় সংক্ষিপ্ত এ অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হক, পৌর মেয়র গোলাম কবির , ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মো.আব্দুল হামিদ,সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট এস এম ফুয়াদ ,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রনি দত্ত, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার কাজি মো. সাখাওয়াত হোসেন, প্রেসক্লাব সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম ও নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান মো.আল আমিন প্রমুখ।


উল্লেখ্য, প্রথম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বরূপকাঠি উপজেলায় বলদিয়া ইউনিয়নে মো. সাইদুর রহমান,সোহাগদল ইউনিয়নে মো. আব্দুর রশিদ,স্বরূপকাঠি ইউনিয়নে মো. আল আমিন, আটঘর কুড়িয়ানা ইউনিয়নে মিঠুন হালদার, জলাবাড়ি ইউনিয়নে মো. তৌহিদুল ইসলাম, দৈহারী ইউনিয়নে মো. জাহারুল ইসলাম,গুয়ারেখা ইউনিয়নে মো. আব্দুর রব সিকদার,সমুদয়কাঠি ইউনিয়নে মো. হুমায়ুন কবির,সুটিয়াকাঠি ইউনিয়নে মো. রুহুল আমিন অসীম ও সারেংকাঠি ইউনিয়নে মো. নজরুল ইসলাম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

অপর দিকে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান শেষে আটঘর কুড়িয়ানা ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান মিঠুন হালদার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক তিনি তার সেই ফেইসবুক পেইজে লিখেন, আমার এমন কিছু নেই যা দিয়ে আপনাদের এই ঋণ শোধ করতে পারব। আপনাদের আস্থা, বিশ্বাস, ভালোবাসায় আমি সিক্ত। আমার সমস্ত মেধা মনন এবং শিক্ষা দিয়ে আপনাদের সেবায় ব্রতী থাকবো। আমি আপনাদের মিঠুন হয়ে বাঁচতে চাই, আপনাদের মিঠুন হয়েই মরতে চাই। যে আবেগ, উচ্ছ্বাস, ভালোবাসা – ভালোলাগা, বিশ্বাস নিয়ে আমাকে সমর্থন দিয়েছেন তার মর্যাদা যেন আমি অক্ষুন্ন রাখতে পারি সেই আশীর্বাদটুকু আমার জন্য করবেন। বিশেষ কারো চেয়ারম্যান নয়, আমি গণমানুষের চেয়ারম্যান হতে চাই।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin