সার্জেন্ট কিবরিয়ার ২য় মৃত্যু বার্ষিকীতে একটি পুলিশ বক্স নির্মানের দাবি পরিবারের

সিটি নিউজ ডেস্ক ।। বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ ( বিএমপি) ট্রাফিক বিভাগের মরহুম সার্জেন্ট মোঃ গোলাম কিবরিয়া মিকেল এর দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী আজ।

তিনি ২০১৯ সালের ১৬ই জুলাই পেশাগত দ্বায়িত্ব পালনকালীন সময় মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছিলেন।

এর আগে ১৫ জুলাই বরিশাল বিশ্ব বিদ্যালয় (ববি) এলাকার হিরোণ পয়েন্ট নামক স্থানে যমুনা গ্রুপের বেপরোয়া কভ্যারভ্যানের চাপায় গুরুতর আহত হন।প্রথমে তাকে উদ্ধার করে শেরে-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে এয়ার এ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। টানা একদিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে ১৬ জুলাই কিবরিয়া চলে যান না ফেরার দেশে।

তার মৃত্যুর পর ঘাতক কভারভ্যান চালকের বিচারসহ ৩দফা দাবিতে মানব বন্ধন করে বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।

৩ দফা দাবির মধ্যে ঘাতক চালককে গ্রেফতার, সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত এবং সার্জেন্ট গোলাম কিবরিয়া মিকেল এর নামে দূর্ঘটনা স্থলে একটি পুলিশ বক্স নির্মাণ করা। তবে আশ্চর্যের ব্যাপ্যার হলো নিহতের ২বছরেও বরিশাল বিশ্ব বিদ্যালয় এলাকায় নির্মাণ হয়নি একটি পুলিশ বক্স।

এ বিষয় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মরহুম সার্জেন্ট গোলাম কিবরিয়া মিকেল এর সহকর্মীরা বলেন,, কিবরিয়া মৃত্যুর আগ মূহুর্ত পর্যন্ত নিষ্ঠার সাথে তার উপর অর্পিত পেশাগত দ্বায়িত্ব পালন করেছে।

কিন্তু দূর্ভাগ্যের বিষয় হলো বেচে থাকা কালীন শুভাকাঙ্খীর অভাব থাকে না। কিন্ত মারা গেলে তখন আর কেউ কাউকে মনে রাখে না।

আমরা তার সহকর্মী হিসেবে ববি এলাকায় কিবরিয়ার নামে একটি পুলিশ বক্স নির্মান করার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সহনুভূতিশীল দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

এ বিষয় বরিশাল বিশ্ব বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বলেন,সার্জেন্ট গোলাম কিবরিয়ার মৃত্যুর পর আমরা মানববন্ধন করেছি এবং তার স্মরণে ববি এলাকায় একটি পুলিশ বক্স নির্মাণ করতে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলাম।

দেখতে দেখতে ২টি বছর কেটে গেছে কিন্তু কিবরিয়ার নামে পুলিশ বক্স নির্মাণ করার জন্য কোন অগ্রগতি পরিলক্ষিত হয়নি। আমরা তার নামে দ্রুত পুলিশ বক্স তৈরি করার জন্য মাননীয় বিএমপি কমিশনার মহোদয় এর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এদিকে পুলিশ সার্জেন্ট গোলাম কিবরিয়া মিকেলের রুহের মাগফেরাত কামনা করে সকলের কাছে দোয়া চেয়েছে তার পরিবারের সদস্যরা।এছাড়াও পারিবারিক ভাবে নিজ বাড়িতে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করার কথা রয়েছে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin