২৮৪ জলদস্যুদের মাঝে র‌্যাব-৮’র ঈদ উপহার বিতরণ

সিটি নিউজ ডেস্ক ‍॥ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী গত ১ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে সুন্দরবনকে জলদস্যু মুক্ত ঘোষণা করেন। এখন শান্তির সু-বাতাস বইছে সুন্দরবনে। অপহরণ-হত্যা এখন তিরোহিত। জেলেদের কষ্টার্জিত উপার্জনের ভাগও কাউকে দিতে হচ্ছে না।

মাওয়ালী, বাওয়ালী, বনজীবী, বন্যপ্রাণী এখন সবাই নিরাপদ। নির্ভয়ে নির্বিঘেœ আসছে দর্শনার্থী-পর্যবেক্ষক এবং জাহাজ বণিকেরা। এভাবেই সরকারের দূরদর্শিতায় সুন্দরবন কেন্দ্রিক অর্থনৈতিক গতিশীলতার ব্যাপক সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দিক নির্দেশনা ও পৃষ্ঠপোষকতা এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধান ও র‌্যাব’র সক্রিয় অংশগ্রহণে সুন্দরবন আজ জলদস্যু মুক্ত। বর্তমানে আত্মসমর্পণকারী জলদস্যুরা পুনর্বাসিত হয়ে স্বাভাবিক জীবন যাপন করছেন।

সরকারের পক্ষ থেকে আত্মসমর্পনকারী সকল জলদস্যু/বনদস্যুদের বিরুদ্ধে রুজুকৃত চাঞ্চল্যকর ও গুরুতর অপরাধের (হত্যা ও ধর্ষণ) মামলা ব্যতিত অন্যান্য সকল সাধারন মামলা সহানুভূতি সহকারে বিবেচনার বিষয়টি চলমান রয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় আত্মসমর্পণকারী কর্মহীন জলদস্যুদের সাহায্যার্থে আসন্ন ঈদ-উল-আয্হা উপলক্ষ্যে রবিবার র‌্যাব ফোর্সেস ডিজির পক্ষ হতে র‌্যাব-৮, বরিশালে আত্মসমর্পণকৃত ২৭ টি বাহিনীর ২৮৪ জন জলদস্যুকে ঈদ উপহার বিতরণ করা হয়।

বাগেরহাট জেলার সাইনবোর্ড (গোয়ালমাঠ) ২৭ জন, ভাগা (মহিলা কলেজ) ৯২ জন এবং মংলায় ৬০ জনকে ঈদ উপহার বিতরণ করেছেন র‌্যাব-৮, বরিশাল এর উপ-অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ও সিপিএসসি এর কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম।

খুলনা জেলার জিরো পয়েন্ট ১৭ জন, আঠারো মাইল ১ জন, তালা বাজার ৩ জন, পাইকগাছা (শিববাড়ী ব্রীজ) ৪ জন এবং কয়রা (উপজেলা পরিষদ) ১৬ জনকে ঈদ উপহার প্রদান করেন র‌্যাব-৮ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শেখ মোঃ ইয়াছিন আলী।

সাতক্ষীরা জেলার সদর (নতুন কোর্ট) ৯ জন এবং মুন্সিগঞ্জে (বাসস্ট্যান্ড) ৫৫ জনকে ঈদ উপহার বিতরণ করেন র‌্যাব-৮ এর অপস্ অফিসার মেজর মোঃ খালেদ মাহমুদ। ঈদ উপহার হিসেবে ছিল- চাল,ডাল,আলু,পেঁয়াজ,সেমাই,চিনি,সয়াবিন তৈল,যাতায়াত ভাড়া বাবদ সম্মানী।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin