বরিশাল বিভাগে নতুন করে ৮ জন করোনায় ও উপসর্গ নিয়ে ৬ জন মারা গেছেন

ডেস্ক নিউজ:: বরিশাল বিভাগে নতুন করে এক দিনে ৮ জন করোনায় ও উপসর্গ নিয়ে ৬ জন মারা গেছেন। এই সম‌য়ে শনাক্ত হয়ে‌ছেন ১৪৯ জন। মৃত‌দের ম‌ধ্যে ১০ জন ব‌রিশালের শের-ই-বাংলা মে‌ডিক্যাল ক‌লেজ হাসপাতা‌লে চি‌কিৎসাধীন ছিলেন। করোনা ও উপসর্গ নিয়ে রাজশাহীতে ২২ জন, বরিশালে ১৪, কুষ্টিয়ায় ১৪ ও ময়মনসিংহে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার সকাল থেকে বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

রাজশাহী

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে এক দিনে মৃতদের মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়ে ৭ জন ও উপসর্গে ১৫ জন মারা গেছেন।

এ নিয়ে চলতি মাসের ২২ দিনে এই হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা গেলেন ৩৮৯ জন। এর মধ্যে করোনা পজিটিভ ছিলেন ১২১ আর উপসর্গে মারা যান ২৬৮ জন।

করোনা ওয়ার্ডে নতুন ভর্তি হয়েছেন ৩১ রোগী। এ সময় সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৯ জন।

বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন ৪৩৪ জনের মধ্যে ২১০ জন করোনা পজিটিভ। উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১৬৬ জন। এ ছাড়া করোনামুক্ত হয়েও পরবর্তী স্বাস্থ্য জটিলাতায় চিকিৎসাধীন ৫৮ জন।

রাজশাহী সিভিল সার্জন অফিস তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার রাজশাহীতে ৭২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩৭ দশমিক ৫ ভাগ।

ব‌রিশাল

বরিশাল বিভাগে নতুন করে এক দিনে ৮ জন করোনায় ও উপসর্গ নিয়ে ৬ জন মারা গেছেন। এই সম‌য়ে শনাক্ত হয়ে‌ছেন ১৪৯ জন। মৃত‌দের ম‌ধ্যে ১০ জন ব‌রিশালের শের-ই-বাংলা মে‌ডিক্যাল ক‌লেজ হাসপাতা‌লে চি‌কিৎসাধীন ছিলেন।

এই নিয়ে বরিশাল বিভাগে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৪০৭ জনে দাঁড়িয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক বাসুদেব কুমার দাস জানান, নতুন করে ১৪৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে বরিশালে শনাক্তের সংখ্যা ৯৭ জন, পটুয়াখালী‌তে ২, ভোলায় ২০, পি‌রোজপু‌রে ২১ ও বরগুনায় ৯ জন।

ব‌রিশাল বিভা‌গে মোট ক‌রোনা শনাক্তের সংখ্যা ২৭ হাজার ৮১২ জন।

বর্তমানে ব‌রিশালের শের-ই-বাংলা মে‌ডি‌ক্যালে করোনা ইউনিটে ২৬৬ রোগী ভ‌র্তি। যার ম‌ধ্যে ১০০ জনের ক‌রোনা পজি‌টি‌ভ। নতুন রোগী এই ইউ‌নি‌টে ৩৪ নতুন রোগী ভ‌র্তি হ‌য়ে‌ছেন।

কুষ্টিয়া

করোনা ডেডিকেটেড কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে করোনায় ১০ জন ও উপসর্গ নিয়ে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আবদুল মোমেন জানান, হাসপাতালে করোনা পজিটিভ ২০৭ জন আর উপসর্গ নিয়ে ৫৫ জন মোট ২৬২ জন চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ সময়ে সুস্থ বাড়ি ফিরেছেন ২২১ জন।

জেলা প্রশাসনের হিসেবে, ৮২টি নমুনা পরীক্ষায় করে ২১ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৫ দশমিক ৬১ শতাংশ।

ঈদের ছুটির কারণে করোনার নমুনা সংগ্রহ কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। আগামী শনিবার থেকে আবার করোনা পরীক্ষা শুরু হবে বলে জানান আবদুল মোমেন।

তিনি বলেন, ‘উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের নমুনা পরীক্ষা করানো হচ্ছে। নমুনা পরীক্ষা শুরু না হওয়া পর্যন্ত কারো করোনার উপসর্গ দেখা দিলে নিজ দায়িত্বে বাড়িতে আইসোলেশনে থাকতে হবে।’

ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৩ জন করোনা শনাক্ত হয়ে ও ৬ জন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।

হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ফোকাল পারসন মহিউদ্দিন খান মুন জানান, বর্তমানে করোনা ইউনিটে ৩৭৯ জন চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে আইসিইউতে আছেন ২২ জন।

এক দিনে নতুন ভর্তি হয়েছে ৩২ রোগী। সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৯ জন।

জেলা সিভিল সার্জন নজরুল ইসলাম জানান, বুধবার ২২৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ৫৭ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। জেলায় আক্রান্তের হার ২৫ দশমিক ২২ শতাংশ।

জেলা প্রশাসনের তথ্য অনুযায়ী, জেলায় এ পর্যন্ত ৯৫ হাজার ৫০৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ১২ হাজার ১৩৭ জনের শনাক্ত হয়। এর মধ্যে ৮ হাজার ৫৯৫ জন সুস্থ হয়েছেন।সুত্র,নিউজবাংলা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin