সিগারেট চুরির অপবাদে যুবককে গাছে বেঁধে নির্যাতন

সিটি নিউজ ডেস্ক ‍॥ বরিশালের হিজলা উপজেলায় দুই প্যাকেট সিগারেট চুরির অভিযোগে নির্মল চন্দ্র দাস নামে এক যুবককে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার গুয়াবাড়িয়া ইউনিয়নের কাউরিয়া বন্দরে শনিবার সকাল ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতনকারী অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম সালাম সরদার। তিনি গুয়াবাড়িয়া ইউনিয়নের নরসিহংপুর গ্রামের ওয়াহেদ সরদারের ছেলে। কাউরিয়া বন্দরে মুদি দোকান দিয়ে ব্যবসা করেন সালাম।

স্থানীয়র জানান, সালাম সরদারের দোকান থেকে দুই প্যাকে সিগারেট চুরির অভিযোগে নির্মল দাসকে বাড়ি থেকে ডেকে এনে নির্যাতন করা হয়েছে। তা ছাড়া শাস্তি হিসেবে ৭ দিনের মধ্যে ১০ হাজার টাকা না দিলে নির্মলকে এলাকা ছাড়া করার হুমকি দেয় সালাম সরদার।

হিজলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তারিক হাসান রাসেল জানান, এক যুবককে সুপারি গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের ভিডিও দেখে অভিযুক্ত সালাম সরদারকে শনিবার বিকেল ৪টায় আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

১৬ সেকেন্ডের ভিডিও চিত্রে দেখা গেছে, পেশায় কাঠমিস্ত্রী নির্মল দাসকে কাউরিয়া বন্দরে একটি সুপারি গাছের সঙ্গে রশি দিয়ে বেঁধে লাঠিপেটা করছেন বন্দরের ব্যবসায়ী সালাম সরদার। এ সময় নির্মল দাসের স্ত্রী বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়।

নির্মল দাসের স্ত্রী রূপা দাস জানান, শনিবার সকালে তার স্বামীকে বাড়ি থেকে বাজারে ডেকে নিয়ে যান সালাম সরদার। পরে বাজারে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে তাকে প্রকাশ্যে বেদম পেটানো হয়। খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গেলে তাকেও ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় সালাম সরদার। রূপা দাস বলেন, তার স্বামী চুরি করে থাকলে না পিটিয়ে পুলিশে দেওয়ার অনুরোধ করেছিলেন। তবুও শোনেননি সালাম।

তবে আটক হওয়ার আগে স্থানীয় সংবাদকর্মীরা নির্মল দাসকে নির্যাতন করার বিষয়ে জানতে চাইলে নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin