কড়াপুরের ফারুকের মাদক বাণিজ্যে, ধ্বংসের মুখে যুবসমাজ

নিজস্ব প্রতিবেদক:: ইতিপূর্বে র‌্যাবের হাতে আটক হলেও পেশা পাল্টায়নি বরিশালের রায়পাশা-কড়াপুরের ফারুকের মাদক বাণিজ্যে যুবসমাজ ধ্বংসের মুখে বরিশাল সদর উপজেলার রায়পাশা-কড়াপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের চেয়ারম্যান বাড়ির বাসিন্দা মো. আবুল কালাম ও তাসলিমা বেগম দম্পতির ছেলে মো. ফারুক লোকসমাজে ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল চালক হলেও প্রকৃত পক্ষে সে একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী বলে জানিয়েছে স্থানীয় একাধিক সূত্র।

স্থানীয় একাধিক সুত্রে জানা গেছে, চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী ফারুক বিগতদিনে ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল চালকের আড়ালে আড়ালে রায়পাশা-কড়াপুর ইউনিয়ন সহ বরিশাল সদর উপজেলা ও ঝালকাঠী এলাকায় ইয়াবা টেবলেট ও গাঁজা বিক্রির করে আসছিলো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কিছুদিন পূর্বে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা সহ র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হয়ে দীর্ঘদিন কারাবাস শেষে জামিনে মুক্তি পেয়ে এখন সে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। ফারুক মাদক ব্যবসা পরিচালনা এবং সরবরাহের কাজে বর্তমানে স্থানীয় বেশ কয়েকজন যুবকও নিয়োগ করেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সরবরাহ কাজে নিয়োজিত এক যুবকের অভিভাবক জানিয়েছেন, আমার ছেলেকে দিয়ে ফারুক বিভিন্ন জায়গায় মাদক আদান-প্রদাানের মাধ্যমে তাকে ধ্বংস করে ফেলেছে। এলাকার একাধিক সুত্রে জানা যায়, ইয়াবা খুব সহজে বহন করতে পারায় ফারুক একাধীক যুবকের মাধ্যমে গোটা এলাকায় ছড়িয়ে দিচ্ছে এই মাদক। ফলে দ্রুততার সঙ্গে বেড়ে যাচ্ছে মাদকসেবীর সংখ্যা।

রায়পাশা-কড়াপুরের একাধিক যুবক ও তরুনের অভিভাবক সাংবাদিকদের জানান, ফারুকের এই মাদক বাণিজ্যে ধ্বংসের মুখে এলাকার উঠতি বয়সী যুবক ও স্কুল-কলেজ পড়–য়া শিক্ষার্থীরা। স্থানীয় তরুন সমাজের অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের নিয়ে চরম দুঃশ্চিন্তায় পড়েছেন। এছাড়া মারাত্মক হুমকির মুখে উঠতি বয়সী তরুন ও যুবকদের ভবিষৎ।

একইসাথে নিজ সন্তান নেশার ছোবলে পথভ্রষ্ট হয়ে পরিবারের লোকজনদের সাথে খারাপ আচরন ও আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করছে একাধিক পরিবার। এই বিষয়ে জানার জন্য ফারুকের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হলেও বন্ধ থাকায় কথা বলা যায়নি। স্থানীয়রা চিহ্নিত মাদক কারবারি ফারুকের মাদক বিক্রি বন্ধ এবং তার মরণ নেশা ইয়াবা-গাঁজা থেকে যুব সমাজ ও তাদের পরিবারকে রক্ষার জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin