করোনা ওয়ার্ডে স্বামীর মৃত্যু, ছুরি নিয়ে চিকিৎসক ও নার্সকে ধাওয়া স্ত্রীর

সিটি নিউজ ডেস্ক:

চাঁদপুর সদর হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে দেলোয়ার হোসেন নামে এক রোগীর মৃত্যুর পর মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন তার স্ত্রী। এ সময় ধারাল একটি ছুরি নিয়ে করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসক, নার্স ও রোগীর স্বজনদের ধাওয়া করতে থাকেন ওই নারী। এক পর্যায়ে তিনি অচেতন হয়ে মেঝেতে পড়ে যান। শুক্রবার (৬আগস্ট) দুপুরে এই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ফরিদগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ রূপসা এলাকার দেলোয়ার হোসেন গতকাল বৃহস্পতিবার করোনার উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। তার নমুনা পরীক্ষায় ফলাফল পজিটিভ আসে। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার দুপুরে তিনি মারা যান। এ ঘটনার পর তার স্ত্রী কুলসুমা বেগম মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন।

তিনি ধারালো ছুরি নিয়ে করোনা ওয়ার্ডের চিকিৎসক, নার্স ও রোগীর স্বজনদের ধাওয়া করেন। এ সময় হাসপাতালে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। হাসপাতালের কর্মচারীরা ওই নারীকে শান্ত করার চেষ্টা করেন।

চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালের এক কর্মচারী জানান, হঠাৎ করেই এক নারী ছুরি নিয়ে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় ছোটাছুটি করতে থাকেন। কিছুক্ষণ পর ওই নারী শান্ত হন। পরে মৃত স্বামীকে অ্যাম্বুলেন্সে নিয়ে বাড়ি চলে যান।

চাঁদপুর সদর হাসপাতালর করোনা বিষয়ক ফোকালপার্সন, আরএমও ডা. সুজাউদ্দৌলা রুবেল বলেন, ‘এক দিন আগেই দেলোয়ার হোসেন হাসপাতালে ভর্তি হন। তার অক্সিজেন লেভেল খুব কম ছিল। অনেক চেষ্টা করেও তাকে বাঁচানো যায়নি। এদিকে দেলোয়ারের মৃত্যুর পরে তার স্ত্রী মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে ছুরি নিয়ে ছোটাছুটি শুরু করেন।’

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin