পায়রা সেতু পরিদর্শনে প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ


স্টাফ রিপোর্টার ॥ সাগরকন্যা কুয়াকাটার সাথে ঢাকা-বরিশাল-কুয়াকাটার মধ্যে সড়ক পথে যোগাযোগ জন্য দুইটি সেতু এতোদিন অন্তরায় হয়ে দারিয়ে ছিলো। বর্তমান সরকার দক্ষিণাঞ্চল বাসীর জন্য স্বপ্নের পদ্মা বহুমুখী সেতু এবং পায়রা সেতু বাস্তবায়ন করে দক্ষিণাঞ্চল বাসীর মুখে হাসি ফুটিয়েছে। বরিশাল কুয়াকাটার মধ্যকার পায়রা সেতু এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায়। গতকাল সোমবার বিকাল ৪ টায় পায়রা সেতু নির্মাণ প্রকল্প সাইট পরিদর্শন করেন বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার মোঃ সাইফুল হাসান বাদল। এসময় উপস্থিত ছিলেন বরিশাল জেলা প্রশাসক মো: জসীম উদ্দীন হায়দার, পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন,

পায়রা সেতু প্রকল্প পরিচালক মোঃ আব্দুল হালিম বরিশাল পুলিশ সুপার মোঃ মারুফ হোসেন, পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল্লাহসহ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

পটুয়াখালী-বরিশাল মহাসড়কে নির্মাণাধীন লেবুখালী-পায়রা সেতু এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায়। এরই মধ্যে সেতুর অবকাঠামোগত নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। এখন চলছে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও রঙের কাজ। বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কের পায়রা নদীর ওপর ২০১৬ সালে লেবুখালী-পায়রা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান লনজিয়ান রোড অ্যান্ড ব্রিজ কনস্ট্রাকশন এর নির্মাণ কাজ করেছে। ১৪৭০ মিটার দৈর্ঘ্য এবং ১৯.৭৬ মিটার প্রস্থের সেতুটি ক্যাবল দিয়ে দুপাশে সংযুক্ত করা হয়েছে। ফলে নদীর মাঝে একটি মাত্র পিলার ব্যবহার করা হয়েছে।
চট্টগ্রামের কর্ণফুলী সেতুর পর এটি দেশের দ্বিতীয়, যা এক্সট্রা ডোজ ক্যাবল সিস্টেমে তৈরি করা। কুয়েত ফান্ড ফর আরব ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট, ওপেক ফান্ড ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট এবং বাংলাদেশ সরকারের যৌথ বিনিয়োগে সেতর নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ১১৭০ কোটি টাকা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin