সমুদ্রে খাঁচায় ইলিশ চাষের পরিকল্পনা

সিটি নিউজ ডেস্ক ‍॥ সমুদ্রে খাঁচায় ইলিশ চাষের পরিকল্পনা চলমান রয়েছে। এ সুবাদে বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন নদী প্রবাহ এলাকায় সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের পরামর্শ দিয়েছে সমুদ্র সম্পদ আহরণ ও সুষ্ঠু ব্যবস্থানা বিষয়ক সমন্বয় কমিটি। ইলিশ চাষের এই প্রক্রিয়ার সম্ভাব্যতা ও খরচের বিষয় যাচাই করতে গবেষক ও সংশ্লিষ্টদের সাথে শীঘ্রই আলোচনা করবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়।

উপকূলীয় অঞ্চলে এলাকা শনাক্ত প্রক্রিয়াধীণ >> ব্লু ইকোনমিতে আরও উন্নতি করার লক্ষ্যে ইলিশ মাছ চাষের পরিকল্পনা নেয়া হয়। এর লক্ষ্যে উপকূলীয় অঞ্চলে নোনাপানি কিছু পকেট এরিয়া শনাক্ত করতে হবে। যেখানে স্রোতের আধিক্য কম। সরকারের দীর্ঘমেয়াদি সুনীল অর্থনীতি (ব্লু ইকোনমি) উন্নয়ন কর্মপরিকল্পনায় মৎস্য খাতে মোট ৯টি পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। এসব পরিকল্পনার অন্যতম হচ্ছে ‘অফশোর এলাকায় খাঁচায় ইলিশ চাষ’। এই বিষয়ে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে জরিপ কাজের জন্য প্রাক্কলিত বাজেট ধরা হয়েছে ৪২ কোটি টাকা।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ব্লু-ইকোনমি অনু-বিভাগের প্রধান যুগ্ম-সচিব ড. মশিউর রহমান বলেন, সমুদ্রে খাঁচায় ইলিশ বা যেকোনো মাছ চাষ বিষয়টি একেবারেই নতুন। খাঁচায় ইলিশ চাষের জন্য সম্ভাব্যতা যাচাই করে লোকেশন চিহ্নিত করতে গবেষকদের মতামত গ্রহণ করা হবে।

বেসরকারি খাত যুক্ত করার পরিকল্পনা >> অফশোর এলাকায় খাঁচায় ইলিশ চাষ পরিকল্পনায় বলা হয়, সরকারি ও বেসরকারি উভয় খাত যৌথভাবে এই উদ্যোগ নিতে পারে। আর বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি মৎস্য সম্পদ অধিদপ্তর, ইনস্টিটিউট অব মেরিস সায়েন্সস অ্যান্ড ফিশারিজ, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের নোনা পানির স্টেশন ও মেরিন স্টেশন একযোগে কাজ করতে পারে।

বিভিন্ন দেশের সমুদ্রে মাছ চাষ হচ্ছে >> ২০০৮ সালে নরওয়ে তাদের সমুদ্র এলাকায় খাঁচায় স্যামন মাছ চাষ শুরু করে। বর্তমানে স্যামস মাছ রপ্তানিতে বিশ্বের বৃহত্তম দেশ নরওয়ে। এ ছাড়া ভিয়েতনাম, চীনেও এই ধরনের চাষাবাদ শুরু হয়েছে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র, চীনসহ আরও কিছু দেশ এখন অফশোর একোয়াকালচার বা সমুদ্রে মাছ চাষের দিকে বেশি বিনিয়োগ করছে।

বার্ষিক ৬ লাখ টন ইলিশ উৎপাদন >> মৎস্যবিষয়ক আন্তর্জাতিক গবেষণা সংস্থা ওয়ার্ল্ডফিশের সর্বশেষ গত বছরের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বের মোট ইলিশের ৮৬ শতাংশ এখন বাংলাদেশে উৎপাদিত হচ্ছে। যা বছর কয়েক আগেও ছিল বিশ্বের মোট ইলিশ উৎপাদনের ৬৫ শতাংশ। ২০১৯-২০ অর্থবছরে উৎপাদন হয়েছে ৫ লাখ ৫০ হাজার টন এবং ২০২০-২১ অর্থবছরে ৬ লাখ টনের উপরে উৎপাদন হবে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin