৩ সহোদরের নির্যাতন থেকে রক্ষা পেতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

বরিশাল নগরীর দক্ষিন আলেকান্দা সিকদারপাড়া এলাকায় ৩ সহোদর সন্ত্রাসী শাহাবুদ্দিন, মহিউদ্দিন ও সোহানের অত্যাচার-নির্যাতন থেকে রক্ষা পেতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। মঙ্গলবার সকাল ৯টায় নগরীর সদর রোডের অশ্বিনী কুমার হলের সামনে সিকদারপাড়াবাসী এবং স্থানীয় ব্যবসায়ীদের উদ্যোগে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

নগরীর ১৩ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সহসভাপতি ও ব্যবসায়ী মো. হেমায়েত সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন রিয়ন সিকদার, সোহেল সিকদার, শফিকুল ইসলাম রাসেল, ইমদাদুল হক দুলাল, নাসরিন বেগম, তারামনি ও রানী বেগম সহ অন্যান্যরা। বক্তারা বলেন, সিকদারপাড়ায় একটি কনজুমার কোম্পানীর ডিলার মো. মাইনুদ্দিন সিকদারের কাছে সম্প্রতি ৩ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে ৩ সহোদর সন্ত্রাসী শাহাবুদ্দিন, মহিউদ্দিন ও সোহান।

চাঁদা না দেয়ায় গত ৩০ সেপ্টেম্বর সকালে স্থানীয় আবুলের চায়ের দোকানের সামনে মাইনুদ্দিনকে মারধর এবং গরমপানি ঢেলে দিয়ে তার শরীর ঝলসে দেয় তারা। এ ঘটনায় ওইদিনই থানায় মামলা করেন মাইনুদ্দিন। কিন্তু আসামীরা ক্ষমতাসীন দলের ছত্রছায়ায় থাকায় পুলিশ এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে আসামীদের গ্রেফতারের দাবী জানান তারা।

বক্তারা আরও বলেন, ৩ সহোদর সন্ত্রাসীর বড় ভাই শাহাবুদ্দিন ১৩ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারন সম্পাদক। তার প্রচ্ছয়ে তার অপর দুই ভাই বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। তারা এলাকায় ছাগল চুরি, চাঁদাবাজী, ছিনতাই ও মাদক ব্যবসায় সম্পৃক্ত। তাদের হাতে ওই এলাকার অনেক নিরীহ সাধারন মানুষ এবং ব্যবসায়ী নিগৃহীত হয়েছে।

৩ ভাইয়ের প্রত্যেকের নামে কোতয়ালী মডেল থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। কিন্তু পুলিশের নিস্ক্রিয়তায় দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে তারা। ভূক্তভোগীরা ৩ সহোদর সন্ত্রাসীর হাত থেকে রক্ষা পেতে প্রশাসনের দৃস্টি কামনা করেন। এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে যুবলীগ নেতা শাহাবুদ্দিনের মুঠোফোনে একাধিকবার রিং দেয়া হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম জানান, এক ব্যবসায়ীকে মারধর এবং গরম পানি ঢেলে ঝলসে দেয়ার ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলার তদন্ত চলছে। আসামীদের গ্রেফতারের চেস্টা চলছে বলে জানান ওসি।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin