৪৪ দিন পর নগরীতে সিটি মেয়র

সিটি নিউজ ডেস্ক ‍॥ টানা ৪৪ দিন পর দুর্গোৎসবে বরিশালে ফিরলেন সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। গত ১৮ আগস্ট প্রশাসন ও পুলিশের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সংঘাতের পর থেকে তিনি ঢাকায় ছিলেন বলে জানা গেছে। দুর্গা পূজা উপলক্ষে গতকাল রোববার বরিশাল সিটি করপোরেশন (বিসিসি) এলাকার ৪৫টি পূজামণ্ডপের প্রতিটিতে ২৫ হাজার টাকা করে অনুদানের চেক বিতরণ করা হয়। এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ।

নগরীর কালীবাড়ি রোডে সেরনিয়াবাত ভবনে চেক বিতরণকালে মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ ১৮ আগস্টের ঘটনার প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, ‘এত বড় ঘটনা হয়েছে। আপনারা দেখছেন, আমি কোনো প্রতিবাদ করিনি। কারণ আমি জানি প্রতিবাদ করলে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষতি হবে।’ তিনি বলেন, ‘ওই দিনের ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখার দাবি করেছিলেন। আমি জানি ফুটেজটা বেরিয়ে আসলে কী হবে।’

মেয়র বলেন, ‘আমি চাই সরকারি প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান, পুলিশ প্রশাসন একত্রে কাজ করুক। তা না করলে টেকসই উন্নয়ন হবে না।’ তিনি বলেন, ‘রাজনীতি পেটে ভাত দেওয়ার জন্য নয়, এটি আদর্শের।’ তিনি দলের প্রশংসা করে বলেন, ‘ছাত্রলীগ, মহানগর আওয়ামী লীগ টিকাদান কর্মসূচি, ত্রাণ সফলভাবে দিয়েছে। কিন্তু কে কত টেন্ডার (দরপত্র) দিতে পারবেন-এটা ছাত্রলীগের কাজ নয়।’ তিনি বলেন, ‘যদি সবার মতো স্রোতে ভেসে যাই, তাল দিয়ে চলি, তাহলে এসব হতো না।’

মেয়র সাদিক বলেন, ‘এই যে ঘটনা ঘটেছে তাতে ব্যক্তিগতভাবে আমার জনপ্রিয়তা বেড়েছে। ফেসবুকে আমার ৫০ হাজার ফলোয়ার (অনুসারী) বাড়ছে। ঢাকা শহরের মানুষ আমাকে দেখে ফিরে তাকাতেন।’

মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, ‘এই যে আমি অনুদান দিতেছি, এসব দেখে আরও ১০ জন আমাকে হিংসা করার জন্য যদি দেন তাতে আমি কিন্তু খুশি। এতে প্রতিপক্ষ মনে করব না’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা পূজা উদ্‌যাপন কমিটির সভাপতি রাখাল চন্দ্র দে, সাধারণ সম্পাদক মানিক মুখার্জী, মহানগর সভাপতি তমাল মালাকার, সাধারণ সম্পাদক চঞ্চল দাস পাপ্পা, মৃনাল কান্তি শাহা, সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ মো. ফারুক প্রমুখ।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin