বরিশালে অনলাইন জুয়াড়িদের হোতা ইব্রাহীম আটক, পলাতক মঞ্জু-সোহেল

সিটি নিউজ ডেস্ক :: বরিশাল সাইবার পুলিশের জালে অনলাইন জুয়াড়িদের মুল হোতা মো: ইব্রাহিম খান,(২২)কে আটক করা হয়েছে। দৃশ্যত আয়ের কোন বৈধ উৎস না থাকা সত্ত্বেও খুবই স্বল্প সময়ের মধ্যেই কিভাবে যেন আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়ে গেছেন ইব্রাহিম। বিষয়টি এলাকার সকলের নিকট বেশ রহস্যেরও সৃষ্টি করে। 

সম্প্রতি ইব্রাহিম স্থানীয় মোহাম্মদ রুহুল আমিন নামক জনৈক ব্যক্তিকে অধিক মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে অনলাইনে ভার্চুয়াল কারেন্সি ক্রয় বিক্রয়ে প্রলুব্ধ করে তার নিকট থেকে মোটা অংকের টাকা নেন। কিছুদিন পর রুহুল আমিন তার টাকা ও মুনাফা চাইলে অভিযুক্ত ইব্রাহিম বিভিন্ন অজুহাতে টাকা ফেরত না দিয়ে কালক্ষেপন করেন। 

এ সংক্রান্ত তথ্যের ভিত্তিতে কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের একটি বিশেষ অভিযানিক টিম ইন্সপেক্টর (অপারেশন) বিপ্লব মিস্ত্রীর নেতৃত্বে নগরীর একটি ভাড়া বাসা থেকে মোঃ ইব্রাহিম খান  কামরান (২২), পিতা- মোঃ আবুল কালাম খান, মাতা-হোসনেয়ারা বেগম, সাং-রসুলপুর, ০৯নং ওয়ার্ড, থানা-কোতয়ালী, জেলা-বরিশালকে আটক করে। এরপর তার হেফাজত থেকে দুটি এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

মোবাইল ফোনের ডাটা পর্যালোচনা করে দেখা যায় অভিযুক্ত ইব্রাহিম পুরোদস্তুর একজন অনলাইন জুয়ারী। সে (টুসকি) এ্যাপস্ সহ বিভিন্ন এ্যাপস্ এর মাধ্যমে অনলাইনে বিভিন্ন সাইটে জুয়া খেলে থাকে এবং অনলাইন জুয়ার কাস্টমার ধরতে অধিকাংশ সময়ই ব্যস্ত থাকে।  

এছাড়াও অভিযুক্ত বিভিন্ন মোবাইল এ্যাপস্ এ একাধিক এজেন্ট একাউন্টের মাধ্যমে প্রায় ৭০/৭২ জন অনলাইন জুয়ারীদের নিকট অনলাইনে জুয়ার ভার্চুয়াল কারেন্সি কেনাবেচা করে ও তা বাংলাদেশী কারেন্সি নগদ টাকায় রূপান্তর করে বিভিন্ন উপায়ে অর্থ আত্মসাৎ করে। 

উল্লেখ্য যে অভিযুক্তের ব্যবহৃত নগদ ও বিকাশ একাউন্টে জুয়ার ২,৭৩,০০০/- (দুই লক্ষ তিহাত্তর হাজার) টাকা মোবাইল ফোনসহ  জব্দ করা হয়। উক্ত ঘটনায় ধৃত অভিযুক্তের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় সোহেল এবং নগরীর ২৯ নংওয়ার্ড শাহ পরাণ সড়কের ভারাটিয়া এবং মোললা বাড়ী সংলগ্ন ভ্যরািইটিজ স্টর( ফলের দোকানদার) মো: নুর ইসলাম (মঞ্জু) সহ অনলাইন জুয়া এবং কয়েন বেচাকেনায় জরিত সন্ধেহে অজ্ঞতনামা ৩০-৩৫ জনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin